পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৭০
ইন্দুমতী।

আবেগ উচ্ছ্বাসভরে কহিল পিতারে—
“নারীজাতি প্রতি যেবা করে অত্যাচার,
কোমল পরাণে তার যেবা দেয় ব্যথা,
অকারণে আনে তা’র নেত্রে অশ্রুজল,
করে সেই মহাপাপ নাহিক সন্দেহ।
ঠাকু’মা বলেছে পাপ ভীষণ অনল,
নিমেষে পুড়ায়ে সব করে ছারখার।
প্রায়শ্চিত্ত হয় তা’র হৃদয় শোণিতে।
ঈশ্বর করুন মুক্ত আপনার পাপ
আমার হৃদয় রক্তে। যে দেহ দিয়াছ
তাত! আজি সেই দেহ, ফিরাইয়া দিনু
ওই চরণে তোমার।” এই কথা বলি,
পিস্তল তুলিয়া পুত্র নিমেষে তখনি
লক্ষ্য করি আপনার কোমল হৃদয়,
ছুড়িল সহাস্য মুখে। পড়িল ভূতলে
ছিন্নমুল তরু প্রায় গালিচা উপরে,
বিগত-জীবন হায়, দেখিতে দেখিতে!
 ভীষণ শব্দ শুনি পঙ্কজিনী মাতা,
তখনি আগতা গৃহে নিমন্ত্রণ হ’তে,
ছুটিয়া আসিল ঘরে, দেখি বিভীষিকা,
চিৎকার করিয়া ভূমে হইল পতিতা!
কাঁপিতে কাঁপিতে গিয়া কতিপয় পদ,