পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/১২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কবিতাসংগ্ৰহ । לפא দেখি বটে এই কাল, ফলত অদৃষ্ট । সুখ দুখ ভেদে বলি,আপন অদৃষ্ট ॥ প্রপঞ্চ শরীর পেয়ে, যত দিন রই । এই কাল এই আমি এই মাত্র কই । নাহি জানি কেবা, কেবা, আমি কেবা হই । কন্তু ভাবি, আমি আমি, কছু আমি নই। বই করি স্থিতিকাল, খুলে দেহ বই। ভবের খাতায় শুধু করি ঢেরা সই ৷ বাজিল ছুটীর ঘড়ি, হলো রোজসই। আর কেন ওহে ভাই, কর হই হই ? বোঝা গেল সবিশেষ, মিছে বোঝা বই। কার প্রতি ভার দিই, কার ভার বই ॥ আমি বলি এই এই, তুমি বল ওই। দেখা যাবে এই ওই,-ক্ষণকাল বই ৷ কুলে থেকে জল লহ, বলি পই পই। দুবিলে মায়ার হ্রদে, পাবেনাকে থই৷

তত্ত্বজ্ঞান ভিন্ন মুক্তি নাই। সাংসারিক কত ক্লেশ, করিতেছ ভোগ । মনে মনে এই বোধ, শিক্ষা হবে যোগ । • সুখের বাসনা যত, করি পরিহার। নিরাহারে কভু থাকে,কতু নীরাহার ॥