পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/১৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ছদ্ম মিশনরি। ভুজঙ্গ হিংস্ৰক বটে, তারে কিবা ভয় ? মণি মন্ত্ৰ মহৌষধুে, প্রতীকার হয় ॥ মিশনরি রাঙ্গা নাগ, দংশে ভাই যারে । একেবারে বিষদাঁতে, সেরে ফ্যালে তারে ॥ ব্যাঘ্র-ভয়ে ব্যগ্ৰ হই, যদি পায় বাগে । লাঠি অস্ত্র থাকিলে কি, ভয় করি বাঘে ? হেদো বনেঞ্চ কেঁদে ৰাখ, রাঙ্গামুখ যার । বাপ বাপ বুক ফাটে, নাম শুনে তার ॥ বাগ করা বাঘ আছে, হাত দিয়া শিরে । ধরিয়া ধৰ্ম্মের গল, নখে ফ্যালে চিরে । ছেলে কালে ছেলেধরা, গুনিয়াছি কাণে এখন হইল বোধ, বিশেষ প্রমাণে ॥ কহিতে মনের খেদ, বুক ফেটে যায়। মিশনরি ছেলেধরা, ছেলে ধয়ে খায় ॥ ‘মাতৃমুখে জুজু কথা, আছি অবগত।

  • হেদুয়া পুষ্করিণীর পাশ্বস্থ, এই অর্থ।