পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/২১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কবিতাসংগ্রহ । ১২৩ ঘোর পাপে ভরা, হোলো ধরা, রণড়ের বিয়ের হুকুম যবে । তায় নীলকরেরদের মেজেষ্টরি, কেমন কোরে ধৰ্ম্মে সবে ? ওভাই ! তত দিন তো খেতে হবে, যত দিন এ দেহ রবে । এখন কেমন কোরে পেট চালাবো, মোরে গেলেম ভেবে ভেবে । রোজ অষ্ট প্রহর কষ্ট ভুগে, ভাতে পোড়া জোড়ে সবে । তায় তেল জোড়ে তো লুণ জোড়ে না, কেঁদে মরি হাহারবে । যে চিরট। কাল মাচ খেয়েছে, কেমনে সে শুকুনে খাবে ই মরি মেগে মেগে, * * মাচ বিনে প্রাণ বেরিয়ে যাবে । এই সবে কলির সন্ধ্যা রে ভাই ! কতক্ষণে রাত পোয়াবে ? ‘হোলো নিরামিষে শরীর শুষ্ক, আমিষের মুখ দেখবো কবে ? ওরে “ উড়ো খই গোবিন্দায় নম ” এই ব্যবস্থা ধরি সবে ।