পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৩০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२०b” কবিতাসংগ্ৰহ । এইরূপে নান ফুল, রূপ রসে সমতুল, প্রস্ফুটিত কানন তিস্তর r • মধুমকি মধুব্রত, প্রজাপতি আদি যত, মধুপানে স্নিগ্ধ কলেবর ॥ আগমনে দিনমান, সরোবর সমিধান, মনোহর শোভায় শোভিত । প্রবল হিল্লেীল পরে, রাজহংস কেলি করে, প্রফুল্ল পঙ্কজ প্রলোভিত । ধবল তরঙ্গ রঙ্গ, । মরালের শ্বেত অঙ্গ, প্রভেদ না হয় অনুমান । হংস হৈত অপহ্নব, কেবল শুনিয়া রৰ, অনুভব অাছে বর্তমান ॥ চারি দিকে বনচয়, স্তব্ধ প্রায় হয়ে রয়, ৰোধ হয় এই সে কারণ। নিরখি সৰ্বরী শেষ, কুমুদীর মুখদেশ, বিষ্যদের রস্ত্রে আবরণ ॥ ইন্দু ৰন্ধু অস্তগত, বিরহে বাসরে রত, অবিরত দুথের উদয় । - দেখি তার মলিনতা, রুদ্যমান বৃক্ষলতা, শব্দহীন প্রায় সবে রয় ॥ কে বলে কুসুম ধরে, আমি বলি অক্ষিবরে, ভূঙ্গরূপ নয়নের তারা ।