পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৩৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


、や● কবিতাসংগ্ৰহ । তোমার কঠিন প্রাণ, নাহি কোন প্রণিধান, বিদীর্ণ হইত প্রাণ, পাষাণ বলিয়া শুধু সহিছে। কেমন কৰ্ম্মের স্বত্র, সলিলে ডুবিল পুল, আমার সমান কুত্র, অভাগিনী বুঝি আর নাই হে। সবে মাত্র এক কন্তে, মা বলিতে নাহি অন্তে, এক দিবসের জন্তে, সে মুখ দেখিতে নাহি পাই হে ॥ সদাই স্বভাবে মত্ত, না লও উমার তত্ত্ব, বুঝেছ কি গুঢ়তত্ব, কি কহিব তুমি হও স্বামী হে। অচল অচল অতি, পাষাণ পাষাণমতি, কি হবে দুর্গার গতি, জেতে নারী যেতে নffর আমি হে ॥ দুহিতা দুখিনী যার, বেঁচে কিবা সুখ তার, রাজ্য হউক ছার খার, কিছুতে না সাধ আছে আর হে। শিবের সম্পদ বল, নাহি জুড়ে অন্নজল, আহার ধুতুরা ফল, - বিম্বতল বাসস্থল সার হে ॥ অগ্নিলাগ ভাল ভাল, নাম কাল কাল-কাল,