পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


न्नेश्वङ्गकॐ ७८लुङ्ग जैौचमकप्रिंउ } २१ লাভ করেন। উছার কবিত্ব এবং রচনাশক্তি দর্শনে अश्नब्र अमैौमांद्र बांबू छांब्रांथं धनान भल्लिक, १९०२ সালের ১০ই শ্রাবণে “সংবাদ রত্নাবলী” প্রকাশ করেন। ঈশ্বরচন্দ্র সেই পত্রের সম্পাদক ছয়েন। ১২৫৯ সালের ১লা বৈশাখের প্রভাকরে ঈশ্বর চন্দ্র বাঙ্গাল সংবাদ পত্ৰ সমূহের যে স্থতিরক্ত প্রকাশ করেন, তন্মধ্যে এই রত্নাবলী সম্বন্ধে লিখিয়া গিয়াছেন, “ বাবু জগন্নাথ প্রসাদ মল্লিক মহাশয়ের আমুকুল্যে মেছুয়াৰাজরের অন্তঃপাতী বঁশতলার গলিতে “ সংবাদ রত্নাবলী * श्रांबिडू'ऊ इरेन । भद्रश्नं क्रछ *ांल ७३ *८जब्र नांमৰাণী সম্পাদক ছিলেন। তাছার কিছু মাত্র রচনাশক্তি ছিল না। প্রথমে ইছার লিপিকাৰ্য আমরাই নিম্পন্ন করিতাম। রত্নাবলী সাধারণ সমীপে সাতিশয় সমাদৃত হইয়াছিল। আমরা তৎকর্থে"বিরত হইলে, রঙ্গপুর ভূম্যধিকারী সভার পূর্বতন সম্পাদক - রাজনারায়ণ ভট্টাচাৰ্য্য সেই পদে নিযুক্ত হয়েন । ” ঈশ্বরচন্ত্রের অনুজ রামচন্দ্র, ১২৬৬ সালের ১লা বৈশাথের প্রভাকরে লিখির গিয়াছেন, “ ফলতঃ গুণাকর প্রভাকরকর বহুকাল রত্নাবলীর সম্পাদীয় কার্য্যে নিযুক্ত ছিলেন না, তাছা পরিত্যাগ করিয়া দক্ষিণ প্রদেশে স্ত্রক্ষেত্রদি তীর্থ দর্শনে গমন করিয়া, কটকে পরম পূজনীয় প্রযুক্ত খামামোছন রায় পিতৃব্য মহাশয়ের সদনে