পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


७२ शेश्वब्राञ्ज ७टॐज़ औबन्न्नब्रिउ । পত্রে সমাদর করিয়া, উন্নতিকম্পে ৰিলক্ষণ যত্নশীল श्रां८झम (* - প্রভাকরের বর্ষ রদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে লেখক এবং সাহায্যকারী সংখ্যা বৃদ্ধি হইতে থাকে। বঙ্গদেশের প্রায় সমৃন্ত সন্ত্রান্ত জমীদার এবং কলিকাতার প্রায় সমস্ত ধনবান এবং কৃতবিদ্য ব্যক্তি প্রভাকরের এাছক ছিলেন। মূল্যদানে অসমর্থ অনেক ব্যক্তিকে ঈশ্বরচন্দ্র বিনামূল্যে প্রভাকর দান করিতেন। তাছার সংখ্যাও ৩/৪ শত হইবে। উত্তর পশ্চিমাঞ্চল প্রভৃতি স্থানের প্রবাসী বাঙ্গালীগণও এাৰক শ্ৰেণীভুক্ত হইয়া নিয়ত স্থানীয় প্রয়োজনীয় সংবাদ পাঠাইতেন। সিপাহীবিদ্রোহের সময়ে সেই সকল সংবাদদাতা সংবাদ প্রেরণে প্রভাকরের বিশেষ উপকার করেন। প্রভাকর এই সময়ে বাঙ্গালীর সংবাদ পত্র সমূহের শীর্ষ স্থান অধিকার করিয়া লয় ॥৭ ১২৫৩ সালে ঈশ্বরচন্দ্র “পাষণ্ডপীড়ন * নামে এক খানি পত্রের স্বষ্টি করেন। ১২৫৯ সালের ১লা বৈশাখের প্রভাকরে সংবাদ পত্রের ইতিৱত্ত মধ্যে ঈশ্বরচন্দ্র লিখিয়৷ গিয়াছেন, " ১২৫৩ সালের আষাঢ় মাসের সপ্তম দিবসে প্রভাকর যন্ত্ৰে পাষণ্ডপীড়নের জন্ম ছইল। ইহাতে পূর্বে কেবল সৰ্ব্বজন-মনোরঞ্জন প্রকৃষ্ট প্রবন্ধপুঞ্জ প্রকটিত হইড, .পরে ৫৪ সালে কোন বিশেষ হেতুতে পাষণ্ডপীড়ন, পাষণ্ডপীড়ন করিয়া, আপনিই পাষও হস্তে পীড়িত