পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৭৪ ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত। ,

দেখ, ৰাজিছে বাষ্প, দিতেছে ঋম্প, ,

মারিছে লম্ফ, হতেছে কম্প, --- - গোরে পৃথ্বী, করে কি কীর্তি, চরণে বৃত্তিবাস। ১ কেরে, করাল-কামিনী, মালগামিনী, काझंब्र प्रामिनौ, छूदनङांक्नैिौ, রূপেতে প্রভাত, করেছে যামিনী, দামিনীম্বড়িত হাস। ২ কেরে, ম্বোধিনী সঙ্গে, কুধিৱরঙ্গে, রণতরঙ্কে, নাচে ত্ৰিভঙ্গে, কুটিলাপাঙ্গে, তিমির-অঙ্গে, করিছে তিমির নাশ।। ৩ আহা, যে দেখি পৰ্ব্ব, যে ছিল গৰ্ব্ব, - হইল খৰ্ব্ব, গেলয়ে সৰ্ব্ব, চরণসরোজে, পড়িয়ে শর্ক, করিছে সৰ্ব্বনাশ।। ৪ দেখি, নিকট মরণ, কররে স্মরণ, মরণহরণ, অভয় চরণ নিবিড় নবীন নীরদবরণ, ” মানসে কর প্রকাশ। ৫ ঈশ্বর গুপ্ত অপূৰ্ব্ব শক্ৰকৌশলী বলিয়া, তাহার যেমন এই গুরুতর দোষ জন্মিয়াছে, তিনি অপূৰ্ব্ব শব্দকৌশলী বলিয়া তেমনি তাহার এক মহৎ গুণ জন্মিয়াছে—যখন অনুপ্রাস যমকে মন না থাকে, তখন র্তাহার বাঙ্গালা ভাষা, বাঙ্গালা লাহিত্যে অতুল। যে ভাষায় তিনি পদ্য লিখিয়াছেন, এমন খাটি বাঙ্গালায়, এমন বাঙ্গালীর প্রাণের ভাষায়, আর কেহ পদ্য কি গদ্য কিছুই লেখে নাই। তাহাতে সংস্কৃতজনিত কোন