পাতা:উড়িয়া স্বতন্ত্র ভাষা নহে.djvu/১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।




উড়িয়া স্বতন্ত্র ভাষা নহে।

 

 

ভারতের অধুনা প্রচলিত ভাষা-সমূহের আদি নিরূপণ।

 ভাষাতত্ত্ববিদ্‌ পণ্ডিতেরা বলেন ইয়ুরোপ ও আসিয়ায় যে সমস্ত ভাষা অধুনা প্রচলিত দেখা যায়, সে সকল প্রধানতঃ তিন ভাগে বিভক্ত। যথা হিন্দু-জর্ম্মণীয় বা আর্য্য, সামীয় ও তুরাণীয়। হিন্দু-জর্ম্মণীয় আবার আট বিশেষ শ্রেণীতে বিভক্ত; যথা সংস্কৃত, ইরাণীয়, সেল্টীয়, ইটালীয়, টিয়ুটোনীয়, স্লাবোনীয়, হেলেনীয় ও ইল্লিরীয়। কিন্তু ভারতবর্ষে এই আট ভাষার মধ্যে সংস্কৃত ও ইরাণীয় এই দুই ভাষাই অধুনা প্রচলিত ও লোককথিত সকল ভাষার মূল। তাঁহারা কহেন সংস্কৃত ভাষা হইতে আবার দশ অপভাষার[১] আবির্ভাব দেখা যায়; যথা হিন্দী, বাঙ্গালা, সিন্ধী, মহারাষ্ট্রী, গুজরাটী, নেপালী, উড়িয়া, কাশ্মীরী, আসামী ও দঘ্রা।

  1. কেহ কেহ সংস্কৃত ভাষা হইতে একাদশ অপভাষার আবির্ভার করিয়া পাঞ্জাবীকেও তাহার অন্তর্নিবিষ্ট করেন। ফলে পাঞ্জাবী হিন্দীরই অবাস্তনিক ভেদ মাত্র।