পাতা:উৎকর্ষ-বিধান - গিরিশচন্দ্র বিদ্যারত্ন.pdf/৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

૪૨ ம்- উৎকর্ষ-বিখন । অচল হইয়া অবস্থিত থাকে। কেহ তাছাদিগকে লইয়া গেলে বা লাড়িয়া দিলে লড়িতে থাকে । ফলতঃ তাহীদের চেতনা নাই, জড় পদাৰ্থ । সেই সকলকে অচেতন কহে আমাদের বুটাতে যে সকল ঘর দ্বার, ঘটাবাটা, কলসী মালসী, চাউল ডাউল, অস্ত্ৰ শস্ত্র ও বস্ত্র প্রভৃতি বস্তু আছে, তাহ সমস্তই অচেতন পদাৰ্থ । বৃক্ষ লতাদিকে উদ্ভিদ পদার্থ কহে । মনোযোগ করিয়া শুন । বৃক্ষ সকল, চেতন পদার্থের তুল্যও নহে, অচেতন পদার্থের ভূল্যও নহে । উহারা চলিতে পারে না, কিন্তু দিনে দিনে বৰ্দ্ধমান হইয়া অচেতন পদার্থীপেক্ষা বিশেষ গুণ ধারণ করে । এবং চেতনের যেমন ইতস্তত: সঞ্চরণ পূর্বক ইচ্ছানুযায়ী কৰ্ম্ম করিতে সমর্থ হয়, উছারা সেরূপও নহে । উছারা স্থাবর *मांर्थ ; डूङल इ३८उ, ८य ऋांटन जेद्धिब शा, বা মনুষ্য কর্তৃক স্থানান্তরে রোপিত হয়, সেই স্থানেই দিনে দিনে বৰ্দ্ধমান হইতে থাকে, এবং কালক্রমে পরিক্ষয় প্রাপ্ত হইয়া যায় । অতএ উহারা উদ্ভিদ শব্দে সংজ্ঞিত হইয়াছে।