পাতা:ঊর্ম্মিমুখর.djvu/৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চলে, সুতরাং কাল কি ক’রে তার সঙ্গে আর দেখা করবো ? এ ক'দিনই কি অদ্ভুত আনন্দে কাট্‌চে। আমাদের ঘাটে গিয়ে নৌকা লাগলো। এবার বন জঙ্গল কেটে দেশের শোভা অনেকটা নষ্ট করে ফেলেচে। দুপুর হয়ে গিয়েছিল, আমি কুঠার মাঠের দিকে একটু বেড়াতে গেলুম পুটি দিদিদের বাড়ী ব্যাগ রেখেই। বাশবনে পাতা পুড়িয়েচে-চারিদিক যেন ফাকা ফাকা দেখাচ্ছে। স্নান করতে গেলুম ঘাটে, সেই বননিমের ঝাড় দাড়িয়ে আছে, খুকু আর আমি সেই ঘাটে নাইতে আসতুম, খুকু ওর তলায় দাড়িয়ে থাকতো—মনে হ’ল যেন কত কাল হয়ে গেল। খেয়ে বিশ্রাম করে চড়ক তলায় গেলুম। উমা এসেচে অনেকদিন পরে, শুনে তার সঙ্গে দেখা করতে গেলুম। মণিকুন্তলার পত্ৰখানা ও আবার দেখলে। চড়কতলায় এসে কতযুগ পরে কাদামাটি দেখি। সোনা নলিনীদির মেয়ে তাকেও দেখলুম কতকাল পরে। পাগলা জেলে সন্ন্যাসী সেজেচে, ওকে কত ছোট দেখেচি। অজয় মণ্ডল বড় বুড়ো হয়ে গিয়েচে, বল্পে আমার বাড়ির কথা, আমার ভাই কেমন আছে। চালতে পোতার বাধা দিয়ে যেতে যেতে এখন এই অংশটা লিখচি। কি অপূৰ্ব্ব গাছপালার শোভা, বারাকপুরের গুলে, আর এই চালতে পোতার পুলে। নদী জলের ও হাক্রা বনের এই যে সুগন্ধ এটা আমাদের ইচ্ছামতীর নিজস্ব। এবার গুড ফ্রাইডের ছুটিটা সৰ্ব্বরকমে বড় আনন্দেই কাটুলো । এত আন জীবনে অনেকদিনই পাইনি। রোদ রাঙা হয়ে আসচে। ডাইনে চালকীর পথের ধারে কচি পাতা ও } শিমুল গাছটায় চাইলে চোখ যেন আর ফেরানো যায় না। যখন এ স শু দেখি, তখন অনর্থক অর্থ ব্যয় করে দেশভ্রমণ করতে প্রবৃত্তি হয় না। এর চেয়ে ভাল কোন দেশ আছে, এত বিচিত্র বনশোভা কি ট্রপিক্যাল আফ্রিকায় ? একটা পাপড় ক্ষাটা সিমুল গাছের কি শোভা হয়েচে। পাপড় ফেটে তুলে বেরিয়ে আছে আঁকাবাকা গাছের ডালে ডালে। নদীর জলে মাঝে মাঝে কচ্ছপ ভেসে উঠে মুখ বার করে "ভূ-উ-উস্ শব্দে নিশ্বাস নিচ্চে। আজ অনেকদিন পরে জালিপাড়ার লেই বায়োস্কোপওয়াল সাহেবের সঙ্গে দেখা হয়ে গেল। দু’চারজন আছে বার্ল্য জীবনের আলাপী, তাদের সঙ্গে যখন পথে ঘুটে এইভাবে হঠাৎ দেখা হয়ে যায়, তখন বড়ই