পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


영 শেষ বর্ষণ ভাব যদি পায়ে পায়ে নাকে খৎ দিয়ে চলতে থাকে সেই স্ত্ৰৈণত অসহ । অন্ততঃ আমার দেশের চাল এ রকম নয় । রাজা । ওহে নটরাজ, রস জিনিষটা স্পষ্ট নয়, রাগিণী জিনিষটা স্পষ্ট। রসের নাগাল যদি বা নাই পাই, রাগিণীটা বুঝি। তোমাদের কবি কাব্যশাসনে তাকেও যদি বেঁধে ফেলে তা হোলে তো আমার মতো লোকের মুস্কিল। নটরাজ । মহারাজ, গাঠছড়ার বঁাধন কি বাধন ? সেই বাধনেই মিলন । তা’তে উভয়েই উভয়কে বাধে। কথায় স্বরে ट्यू একাত্মা | পারিষদ । অলমতি বিস্তরেণ । তোমাদের ধৰ্ম্মে যা বলে তাই করে, আমরা বীরের মতো সহ ক’রবো। নটরাজ। (গায়ক গায়িকাদের প্রতি ) ঘন মেঘে র্তার চরণ পড়েছে। শ্রাবণের ধারায় তার বাণী, কদম্বের বনে তার গন্ধের অদৃশ্ব উত্তরীয়। গানের আসনে তাকে বসাও, স্বরে তিনি রূপ ধরুন, হৃদয়ে তার সভা জমুক। ডাকো— এসে নীপবনে ছায়াবীথিতলে, এসো করো মান নবধারা জলে ৷ দাও আকুলিয়া ঘন কালো কেশ, পরো দেহ ঘেরি মেঘনীল বেশ ; কাজল নয়নে যুথীমালা গলে এসো নীপবনে ছায়াবীথিতলে।