পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১২৭ . বসন্ত রাজা আমার মন্ত্রণাসভার করলে কি ? সব মন্ত্রী যে এখানে এসে জুটেছে। ঐ দেখ আমার অর্থসচিবযুদ্ধ যে নাচতে স্বরু করে দিলে। বড় লঘু হয়ে পড় চেন না ? কবি ওঁর যে থলি শূন্ত হয়ে গেছে, তাই নাচে টেনেচে। বোঝা ভারি থাকলে গৌরবে নড়তে পারতেন না। আজ আমাদের অগৌরবের উৎসব। রাজা রাজগৌরব ? কবি সেও টিকুলো না। তাই তো ঋতুরাজ আজ রাজবেশ খসিয়ে দিয়ে বৈরাগী হয়ে বেরিয়ে চলেচে । এবার ধরণীতে তপস্যার দিন এসেচে, অর্থসচিবদের হাতে কাজ থাকবে না । • ভাঙন-ধরার ছিন্ন-করার রুদ্র নাটে যখন সকল ছন্দ-বিকল বন্ধ কাটে, মুক্তি-পাগল বৈরাগীদের চিত্ততলে প্রেম-সাধনার হোম-হুতাশন জ্বলবে তবে । ওরে পথিক, ওরে প্রেমিক, সব আশা-জাল যায়রে যখন উড়ে পুড়ে আশার অতীত দাড়ায় তখন ভুবন জুড়ে, স্তব্ধ-বাণী নীরব-সুরে কথা ক’বে ॥ আয়রে সবে প্রলয়-গানের মহোৎসবে ॥