পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব Ꮌ8Ꮼ চীন-সম্রাটের দূত অপেক্ষ ক'চেন। অপেক্ষা করতে দোষ নেই, কিন্তু সাক্ষাং পাবেন না। ঐ যে মহারাজ আসচেন । জয় হোক মহারাজের । মহারাজ, সভায় যাবার সময় হ’লো। যাবার সময় হলো বৈ কি, কিন্তু সভায় যাবার নয়। সে কি কথা, মহারাজ ? সভা ভাঙবার ঘণ্টা বেজেচে শুনতে পেয়েচি । কই, আমরা তো কেউ— তোমরা শুনবে কী করে ? ঘণ্টা একেবারে আমারই কানের কাছে বাজিয়েচে । এত বড়ো স্পৰ্দ্ধা কা’র হতে পারে? মন্ত্রী, এখনো বাজাচ্ছে। মহারাজ, দাসের স্থূলবুদ্ধি মাপ করবেন, বুঝতে পাবলুম না। এই চেয়ে দেখো— মহারাজের চুল— ওখানে একজন ঘণ্টা-বাজিয়েকে দেখতে পাচ্চ না ? দাসের সঙ্গে পরিহাস ? পরিহাস আমার নয়, মন্ত্রী, যিনি পৃথিবীমৃদ্ধ জীবের কানে ধ’রে পরিহাস করেন, এ তারই । গত রজনীতে আমার গলায় মল্লিকার মালা পরাবার সময় মহিষী চম্কে উঠে বল্লেন, এ কি মহারাজ, আপনার কানের কাছে দু’টাে পাকাচুল দেখচি যে। মহারাজ, এজন্য খেদ করবেন না-রাজবৈদ্য আছেন তিনি— এ বংশের প্রথম রাজা ইক্ষাকুরও রাজবৈদ্য ছিলেন, তিনি কী করতে পেরেছিলেন?—মন্ত্ৰী,যমরাজ আমার কানের কাছে তার নিমন্ত্রণপত্ৰ