পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কেন না তাদের মন্ত্র আনন্দের মন্ত্র, সব চেয়ে বড়ে বৈরাগ্যের মন্ত্র। ওহে কবি, তাহলে তুমি আমাকে কী করতে বলে ? উঠতে বলি, মহারাজ চলতে বলি। ঐ যে কারা, ওযে প্রাণের কাছে। কিন্তু ডাক শুনে যদি ভিতরে সাড়া না দেয়, প্রাণ যদি ন লৈ ওঠে তবে অকৰ্ত্তব্য হ’লে৷ ব’লে ভাবনা নয়, তবে ভাবনা মরেচি ব'লে। কিন্তু মরবোই যে, কবিশেখর, আজ হোক আর কাল হোক। । কে বয়ে মহারাজ, মিথ্যা কথা! যখন দেখচি বেঁচে আছি, তখন জানাচি যে বঁাচবোই;—যে আপনার সেই বাচাটাকে সব দিক থেকে যাচাই ক’রে দেখলে না সেই বলে "নলিনীrলগতঙ্গলমতিতরলং তদ্বৎজীবনমতিশয়চপলং ” - - কী বলো হে, কবি, জীবন চপল নয় ? চপল বই কি, কিন্তু অনিত্য নয়। চপল জীবনটা চিরদিন চপলতা করতে-করতেই চলবে। মহারাজ, আজ তুমি তার চপলতা বন্ধ করে মরবার পালা অভিনয় আরম্ভ ক’বুতে বসেছ ? ঠিক ব'লচে কবি ? আমরা বাঁচবোই ? বাচবোই! o যদি বাঁচবোই তবে বাচার মতো করেই বাচতে হবে—কী বলে ! ই মহারাজ ! প্রতিহারী ! কী মহারাজ ! ডাকো, ডাকো, মন্ত্রীকে এখনি ডাকো । কী মহারাজ । মন্ত্রী, আমাকে এতক্ষণ বসিয়ে রেখেচো কেন ?