পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব >bや (বাহির হইতে) ওগো, কোটাল, কোটাল, কোটাল ! কেরে। অনাথ কলু দেখছি। কি হয়েছে? সেই যে ছেলেটাকে পুষেছিলুম তাকে বুঝি কাল রাত্রে ভুলিয়ে নিয়ে গেছে সেই ছেলেধরা। কোন ছেলেধরা ? সেই বুড়ে । চন্দ্রহাস। বুড়ো ? বলিস্ কিরে? আপনারা অতো খুসি হন কেন ? . ওটা আমাদের একটা বিত্র স্বভাব। আমরা খামক খুসি হয়ে উঠি ! কোটাল। পাগল ! একেবারে উন্মাদ পাগল ! চন্দ্রহাস। তাকে তুমি দেখেচে হে ? কলু। বোধ হয় কাল রাত্রে তাকেই দূর থেকে দেখেছিলুম। কি রকম চেহারাটা ? . কলু। কালো, আমাদের এই কোটাল দাদার চেয়েও। একেবারে রাত্রের সঙ্গে মিশিয়ে গেছে। আর বুকে দু’টাে চক্ষু জোনাক পোকার মতো জ'ল্‌চে। *. ওহে বসন্ত-উৎসবে তো মানাবে না। চন্দ্রহাস। ভাবনা কি ? তেমন যদি দেখি তবে এবার না হয় পূর্ণিমায় উৎসব না ক’রে অমাবস্তায় করা যাবে। অমাবস্তার বুকে তো চোখের অভাব নেই। কোটাল। ওহে বাপু, তোমরা ভালো কাজ কারচো না। না, আমরা ভালো কাজ ক'চিনে। আবার ধরা পড়েচি রে, আমরা ভালো কাজ ক'চিনে। কি করবে, অভ্যাস নেই। যেহেতু আমরা ভালমানুষ নই।