পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সন্দেহ তৃতীয় দৃশ্ব । মাঠ সবাই বলে ঐ, ঐ, ঐ,—তা’র পরে চেয়ে দেখলেই দেখা যায়, শুধু ধূলো আর শুকনো পাতা। তা’র রথের ধ্বজাটা মেঘের মধ্যে যেন একবার দেখা দিয়েছিলো । কিন্তু দিক্ ভূল হয়ে যায়। এই ভাবি পূবে, এই ভাবি পশ্চিমে। এমনি করে সমস্ত দিন ধূলো আর ছায়ার পিছনে ঘুরে ঘুরেই হয়রান হ’য়ে গেলুম। বেলা যে গেল রে ভাই, বেলা যে গেল। সত্যি কথা বলি, যতোই বেলা যাচ্চে ততোই মনে ভয় ঢুক্‌চে। মনে হচ্চে ভুল করেছি। সকাল বেলাকার আলো কানে কানে ব'ল্লে, সাবাস, এগিয়ে চলে,— বিকেল বেলাকার আলো তাই নিয়ে ভারি ঠাট্টা ক'বৃচে। ঠক্‌লুম বুঝি রে! 帶 দাদার চৌপদীগুলোর উপরে ক্রমে শ্রদ্ধা বাড়চে। ভয় হচ্চে আমরাও চৌপদী লিখতে বসে যাবো—বড়ো দেরি নেই! আর পাড়ার লোক আমাদের ঘিরে বসবে। আর এমনি তাদের ভয়ানক উপকার হতে থাকবে যে, তারা এক পা নড়বে না। আমরা রাত্রি বেলাকার পাথরের মতো ঠাও হয়ে বসে থাকবো। ও ভাই, আমাদের সর্দার এসব কথা শুনলে ব’ল্বে কি ?