পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব । ૨૪૨ চন্দ্রহাস । সে তো আমি চোখ-দিয়ে দেখিনি। তবে ? চন্দ্ৰহাস । আমার সব-দিয়ে দেখেছিলুম। তা হোক না, বলে না ভাই । চন্দ্রহাস। আমার সমস্ত দেহ মন যদি কণ্ঠ হ'তে ব’লতে পারতো। কা’কে তুমি ধ’রেচো তাও কি বুঝতে পারলে না ? জগতের সেই বিরাট বুড়োটাকে.? যে বুড়োটা অগস্ত্যের মতো পৃথিবীর যৌবনসমুদ্র শুষে খেতে চায় ? সেই যে ভয়ঙ্কর ? যে অন্ধকারের মতো ? যার বুকে দু’টো চোখ ? যার পা উন্টে দিকে ? যে পিছনে হেঁটে চলে ? নরমুণ্ড যার গলায় ? শ্মশানে যার বাস ? চন্দ্রহাস। আমি তো বলতে পারিনে। সে আসচে, এখনি তাকে দেখতে পাবো । * ভাই বাউল, তুমি দেখেচো তা’কে ? বাউল । ই, এই তো দেখচি । কই ? বাউল । এই যে ! 齡 ঐ যে বেরিয়ে এলো, বেরিয়ে এলো। ঐ যে কে গুহা থেকে বেরিয়ে এলো ! আশ্চৰ্য্য ! আশ্চৰ্য্য ! - চন্দ্রহাস। এ কি, এ যে তুমি! তুমি ! সেই আমাদের সর্দার । আমাদের সর্দার রে ! বুড়ে কোথায় ? সর্দার। কোথাও তো নেই।