পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব ঘরের লোক ব’ল্বে অনাবশ্বক। বাইরের লোক বাবে অদ্ভূত। চন্দ্ৰহাস। আমরা তোমার মাথায় পরাব নবপল্লবের মুকুট। তোমার গলায় পরাব নবমরিকার মালা। পৃথিবীতে এই আমরা ছাড়া আর কেউ তোমার আদর বুঝবে না। সকলে মিলিয়া উৎসবের গান আয় রে তবে, মাত রে সবে আনন্দে আজ নবীন প্রাণের বসন্তে ! পিছনপানের বঁাধন হ’তে চল ছুটে আজ বন্যাস্রোতে । আপনাকে আজ দখিন হাওয়ায়, ছাড়িয়ে দে রে দিগন্তে, আজ নবীন প্রাণের বসন্তে। । বাধন যতো ছিন্ন কর আনন্দে ‘আজ নবীন প্রাণের বসন্তে! । অকূল প্রাণের সাগর-তীরে ভয় কিরে তোর ক্ষয়-ক্ষতিরে ? যা আছে রে সব নিয়ে তোর বাপ দিয়ে পড় অনন্তে । ಸಿ རྨི་ ་་་་་་། আজ নবীন প্রাণের বসন্তে। । ২১৬