পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৩ w শেষ বর্ষণ নটরাজ । শুভ্ৰ শান্তির মূৰ্ত্তি ধ’রে এইবার আস্থন শরত্র। সজল হাওয়ার দোল থেমে যাকৃ—আকাশে আলোক-শতদলের উপর তিনি চরণ রাখুন, দিকে দিগন্তে সে বিকশিত হয়ে উঠুক। এসো শরতের অমল মহিমা, এসো হে ধীরে । চিত্ত বিকাশিবে চরণ ঘিরে। বিরহ-তরঙ্গে অকুলে সে দোলে দিবা যামিনী আকুল সমীরে। (বাদল লক্ষ্মীর প্রবেশ।) রাজা । ও কী হল নটরাজ, সেই বাদললক্ষ্মীই ত ফিরে এলেন ; মাথায় সেই অবগুণ্ঠন। রাজার মানই ত রইল, কবি তো শরৎকে আনতে পারলেন না । নটরাজ । চিনতে সময় লাগে মহারাজ। ভোর রাত্রিকেও নিশীথ রাত্ৰি ব’লে ভূল হয়। কিন্তু ভোরের পার্থীর কাছে কিছুই লুকোনো থাকে না ; অন্ধকারের মধ্যেই সে আলোর গান গেয়ে ওঠে । বাদলের ছলনার ভিতর থেকেই কবি শরংকে চিনেছে, তাই আমন্ত্রণের গান ধরল। ওগো শেফালি বনের মনের কামনা, কেন সুদূর গগনে গগনে আছ মিলায়ে পবনে পবনে ? কেন কিরণে কিরণে ঝলিয়া যাও শিশিরে শিশিরে গলিয়া ?