পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব । ২৬ নটরাজ । অবগুণ্ঠন ত খুললো। কিন্তু এ কী দেখলুম। এ কি রূপ, না বাণী ? এ কি আমার মনেরি মধ্যে, না আমার চোখেরই সামনে ? তোমার নাম জানিনে সুর জানি। তুমি শরৎ প্রাতের আলোর বাণী। সারা বেলা শিউলি বনে আছি মগন আপন মনে, কিসের ভুলে রেখে গেলে আমার ব্যথার বঁাশিখানি । আমি যা বলিতে চাই হোলো বল, ঐ শিশিরে শিশিরে অশ্রুগলা । আমি যা দেখিতে চাই প্রাণের মাঝে সেই মূরতি এই বিরাজে, ছায়াতে আলোতে আঁচল গাথা আমার আকারণ বেদনার বীণাপাণি ৷ রাজা । শরত্র কাকে ইসার করে ডাকচে ? বলে ত এবার কে আসবে? নটরাজ । উনি ডাক্‌চেন সুন্দরকে। যা ছিলো ছায়ার কুঁড়ি তা ফুটুলো আলোর ফুলে। গানের ভিতর দিয়ে তাকিয়ে দেখুন। ( সুন্দরের প্রবেশ ) , কার বঁাশি নিশিভোরে বাজিল মোর প্রাণে ? ফুটে দিগন্তে অরুণ-কিরণ-কলিকা ৷