পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SG: শারদোৎসব মন্ত্রী। কবি বলেন, শরৎকালের শিউলিফুলের মধ্যে যেন কোন আসক্তি নেই, যেমন সে ফোটে তেমনি সে ঝ'রে পড়ে। রাজা। একথা মানতে হয়। মন্ত্রী। কবি বলেন, শরৎকালের কাশের স্তবক না বাগানের না বনের , । সে হেলাফেলায় মাঠে ঘাটে নিজের অকিঞ্চনতার ঐশ্বৰ্য্য বিস্তার করে । বেড়াচ্ছে। সে সন্ন্যাসী । . রাজা । এ কথা কবি বেশ বলেছে। r মন্ত্রী। কবি বলেন, শরতে কঁাচা ধানের যে ক্ষেত দেখি, কেবল আছে তার রং, কেবল আছে তার দোল । আর কোনো দায় যদি তার থাকে সে কথা সে একেবারে লুকিয়েচে । রাজা । ঠিক কথা । la মন্ত্রী। তাই কবি বলেন, তার শারদোৎসবের যে পালা সে ঐ রকমই হাল্কা, ঐ রকমই নিরর্থক । সে পালায় কাজের কথা নেই, সে পালায় আছে ছুটির খুসি। রাজা । বাঃ, এ তো মন্দ শোনাচ্ছে না । ওর মধ্যে রাজা কেউ আছে ? মন্ত্রী । একজন আছেন। কিন্তু তিনি কিছুদিনের জন্যে রাজত্ব থেকে ছুটি নিয়ে সন্ন্যাসী বেশে মাঠে ঘাটে বিনা কাজে দিন কাটিয়ে বেড়াচ্ছেন। রাজা। বাঃ বাঃ, শুনে লোভ হয় যে ! আর কে আছে ? মন্ত্রী। আর আছে সব ছেলের দল । রাজা । ছেলের দল ? তাদের নিয়ে কী হবে ? মন্ত্রী। কবি বলেন, ঐ ছেলেদের প্রাণের মধ্যেই তো আসল ছুটির চেহারা । তারা কাচা ধানের ক্ষেতের মতোই নিজে না জেনে, কাউকে না জানিয়ে, ছুটির ভিতরেই, ফসলের আয়োজন করছে। রাজা । তা ঐ ছেলের দলকে ভাল ক’রে শেখান হয়েছে ?