পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উ ৎসব . ...' \') o সন্ন্যাসী . . বলো কি ঠাকুর্দা ! এক মুঠো চাল যেখানে দুর্লভ, সেখান থেকে সেটি নিতে হবে বৈ কি ! বাবা লক্ষেশ্বর, চলে তোমার ঘরে। লক্ষেশ্বর - আমি পরে যাচ্ছি, তোমরা এগোও। উপনন্দ, তুমি আগে ওঠে। ওঠে, শীঘ্র ওঠে বলছি, তোলো তোমার পুথিপত্র। . উপনন্দ আচ্ছা, তবে উঠলেম, কিন্তু তোমার সঙ্গে আমার কোনো সম্বন্ধ রইল না ! লক্ষেশ্বর না থাকলেই যে বাচি বাবা । আমার সম্বন্ধে কাজ কি ! এত দিন তো আমার বেশ চলে যাচ্ছিল। উপনন্দ আমি যে ঋণ স্বীকার করেছিলেম, তোমার কাছে এই অপমান সহ ক’রেই তার থেকে মুক্তি গ্রহণ করলেম । বাস চুকে গেল! (প্ৰস্থান ) লক্ষেশ্বর ওরে । সর ঘোড়সওয়ার আসে কোথা থেকে ! রাজা আমার গজমোতির খবর পেলে না কি ! এর চেয়ে উপনন্দ যে ছিল ভাল। এখন কী করি । (সন্ন্যাসীকে ধরিয়া) ঠাকুর, তোমার পায়ে ধরি, তুমি ঠিক এইখানটিতে বসো— এই যে এইখানে—আর একটু বা দিকে সরে এসো—এই হয়েছে। খুব চেপে বসে । রাজাই আমুক আর সম্রাটই আস্থক, তুমি কোনোমতেই এখান থেকে উঠে না। তা হলে আমি তোমাকে খুসি ক’রে দেবো । ঠাকুরদাদা আরে লখা করে কী ! হঠাৎ খেপে গেল না কী ।