পাতা:ঋতু-উৎসব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঋতু-উৎসব ৮২ ছেলেরা সোনার রঙের কাপড় কোথায় পাবো ঠাকুর ? সন্ন্যাসী ঐ বেতসিনীর ধার দিয়ে যাও । যেখানে বটতলায় পোড়ো মন্দিরটা আছে, সেই মন্দিরটায় সমস্ত সাজানো আছে। ঠাকুর্দা তুমি এদের সাজিয়ে আনোগে | - ঠাকুরদাদা তবে চলো সবাই। . (প্রস্থান) সন্ন্যাসীর গান রামকেলি—কাওয়ালী নব কুন্দধবলদল-সুশীতলা, অতি সুনিৰ্ম্মল, সুখ-সমুজ্জ্বলা, o শুভ সুবর্ণ আসনে অচঞ্চল। স্মিত উদয়ারুণ-কিরণ-বিলাসিনী, পূর্ণসিতাংশু-বিভাস-বিকাশিনী, নন্দনলক্ষ্মী সুমঙ্গলা । ( লক্ষেশ্বরের প্রবেশ ) লক্ষেশ্বর দেখ ঠাকুর, তোমার মস্তর যদি ফিরিয়ে না নাও তো ভাল হবে ন! বলুচি। কী মুস্কিলেই ফেলেছে, আমার হিসেবের খাতা মাটি হয়ে গেল। একবার মনটা বলে যাই সোনার পদ্মর খোজে, আবার বলি থাকৃগে ও সব বাজে কথা! একবার মনে ভাবি, এবার বুঝি তবে ঠাকুর্দাই জিতলে বা, আবার ভাবি মরুকৃগে ঠাকুর্দা ! ঠাকুর, এ তো ভালো কথা নয়! চেলা-ধর । ব্যবসা দেখচি তোমার ! কিন্তু সে হবে না, কোনো মতেই হবে না !