পাতা:এই কি ব্রাহ্ম বিবাহ - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

( ১১ )

যোগ দিবেন না। ২। বিবাহ মণ্ডপে কোন দেব দেবীর মূৰ্ত্তি অথবা অগ্নি অথবা ঘটাদি স্থাপন করা হইবে না। ৩। যে মন্ত্রাদি এই কাগজে লেখা হইল তাহাই পুরোহিত পাঠ করিবেন কিন্তু তদ্ব্যতীত অন্য কোন মন্ত্রাদি উচ্চারণ করা হইবে না। ৪। মন্ত্রাদির কোন অংশ পরিত্যাগ বা পরিবর্ত্তন করা হইবে না। পদ্ধতিসম্বন্ধে আরো নিৰ্ব্বিরোধ থাকিবার মানসে কন্যাপক্ষ হইতে এরূপ প্রস্তাব হইল যে উল্লিখিত বিবাহরীতি ডিপুটী কমিসনর সাহেব অথবা তাঁহার প্রতিনিধি বিবাহের পূৰ্ব্বে স্বাক্ষর করিয়া দিবেন।”

 দুঃখের বিষয় পূৰ্ব্বোক্ত নিয়মের কোনটাই রক্ষিত হয় নাই । (১) বিবাহের পূৰ্ব্বে কন্যাকে প্রায়শ্চিত্ত করান হইয়াছিল এবং বিবাহের পরে অর্থাৎ সম্প্রদানের পরে বর হোমস্থানে উপস্থিত ছিলেন। প্রথম নিয়মটীর দশা ত এইরূপ হইল! দ্বিতীয়টীর অবস্থাও তদধিক। বিবাহ মণ্ডপে দেবমূৰ্ত্তি, অর্থাৎ হরগৌরী, অগ্নি অর্থাৎ হোমাগ্নি এবং ঘট তিন বর্ত্তমান ছিল। (৩) তৃতীয় নিয়মটীর দুর্দ্দশা আরও অধিক হইয়াছিল সেই পদ্ধতির মন্ত্রাদির অংশ পরিবর্ত্তন করা দূরে থাকুক সে পদ্ধতিই পরিত্যক্ত হইয়াছিল। (প্রমাণ এই পত্র)

 ৮। কেহ কেহ হয় ত বিবেচনা করিতে পারেন যে কন্যাপক্ষ প্রতারণা পূৰ্ব্বক এই সকল নিয়ম ভঙ্গ করাইয়াছিলেন; কিন্তু তাহা নহে। তাহারা কেশব বাবুর কুচবিহার যাত্রার পূর্ব্বেই কেশব বাবুকে স্পষ্টাক্ষরে বলিয়া পাঠান যে, ব্রাহ্মরীতি সংযুক্ত পদ্ধতি অনুসারে বিবাহ হইবে না। প্রতাপ