পাতা:এলিজিবেথ.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

এলিজিবেথ । eఎ অতিথি এই রূপ বিস্তর প্রবোধ বাক্য প্রয়োগ করিতে লাগিলেন, কিন্তু ফেডোরার মনে কিছুই সাত্মন হইল না । তিনি সবিনয় বাক্যে জিজ্ঞাসা করিলেন । “ ধৰ্ম্মপিতঃ ! যদি আমি ভাগ্যদোষে আমার বাছাকে আর পুনৰ্ব্বার দেখিতে না পাই ” - ঐ ব্যক্তি তখনি উত্তর করিলেন, “ দেখিতে পাইবে না কেন ? স্বৰ্গরাজ্যে তাহার বাস কর। স্থিরই অাছে এবং এই মর্ত্যলোকেও পুনৰ্বার দেখা সাক্ষাৎ হইবেক, চিন্তা কি? বিষয়টি অত্যন্ত কঠিন বটে তাছাতে আর কিছুমাত্র সন্দেহ নাই, কিন্তু পরমেশ্বর সহায় হইয়। তাছাকে রক্ষা করিবেন। যাহার পক্ষে যখন যেটা অসহ্য হইয় উঠে, পরমেশ্বর তখনই তাছা সহ্য করিয়া দিবার উপায় বিধান করেন ।” ফেডোর। এই সমস্ত কথা শুনিয়া ধৈর্য্য পুৰ্ব্বক প্রণাম করিলেন। স্পিন্সর তখন এমনি অভিভূত যে তাহার মুখদিয়া একটি কথাও নির্গত হইতেছে না, কেবল অবাক হইয়। শুনিতেছেন এই মাত্র। এলিজিবেথ একাল পর্য্যন্ত ক্ষণকালের জন্যও সাহসের শৈথিল্য অনুভব করেন নাই। এখন প্রকৃত সময় উপস্থিত দেখিয়া তাহার অন্তঃকরণ ও বিলক্ষণ রূপে ব্যাকুল ও কাতর হইতে লাগিল। ইতিপূৰ্ব্বে তিনি পিতাকে উদ্ধার করিতে প্রবৃত্ত হইবেন, এই সাহসিক উৎসাহে এত দূর পর্য্যন্ত সমুৎসুক হইয়াছিলেন যে তাহার অন্তঃকরণে পিতৃ মাতৃবিচ্ছেদের শোক কিছু মাত্রই উদ্ভূত বা অনুভূত হয় নাই। সম্প্রতি এমনি সময়টি উপস্থিত। হইল যে তিনি আর, পরদিন অবধি এক বৎসর কাল পিতার মুখহইতে অমৃতময় বাক্য শুনিতে ও মাতার নিকট হইতে সুকুমার বাৎসল্য ভাব অনুভব করিতে পাইবেন না! , যাহা হউক, এ রূপ ভাবনায় এলিজিবেথকে নিতান্ত অভি. ভূত করিয়৷ তুলিল নয়নদ্বয় প্রভাহীন হইল। মুখাকার L 態