পাতা:এলিজিবেথ.pdf/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

এলিজিবেথ। । సరికి 豪 - * ..., অচিরাৎ ইহঁাদিগকে এই দুঃসহ যাতনাহইভে মুক্ত করিয়া স্বদেশে লইয়া যাই। ফলে তিনি মনোমধ্যে স্থির জানিতে পারিয়াছিলেন তিনি যে বৃহৎকার্ষ্যে প্রবৃত্ত হইবেন, স্মোলফ তাহাতে যথাসাধ্য সাহায্য করিতে জুটি করিবেন না । তাহার মনে এমনি দৃঢ় প্রত্যয় জন্মিয়াছিল, যে দয়ালু স্মোলফ, যত দূর পর্যন্ত সহায়তা কর। আবশ্যক তাহা করিতে কদাচই বিমুখ হইবেন না। কিন্তু এ কথা উত্থাপন করিতে গেলে পাছে পিতা মাত। তাহাতে অসম্মত হন কেবল এই আশঙ্কাতেই তিনি উৎকণ্ঠিত হইতে লাগিলেন। তাহণদের স্বদেশের নাম এবং কি অপরাধেই বা তাছার নির্বাসিত হইয়াছেন তাহার বিশেষ বৃত্তান্ত অবগত না হইয়া, যদি তিনি তাহাদিগকে পরিত্যাগ করিয়৷ যাইতেন, তাছা হইলেও কোন ফলের সম্ভাবনা ছিল না। এলিজিবেথ মনে মনে ভাবিয়া দেখিলেন যে এ কথা কোন ন। কোন সময়ে উথাপন না করিলে আমার এ কার্য্যসাধনে প্রবৃত্ত হওয়া কদাচই ঘটিয়া উঠিবেক না । অতএব ইহার এখন যে অবস্থায় আছেন দেখিতেছি এ বিষয় উত্থাপন করিবার ইহাই উপযুক্ত সময়। মনে মনে এই প্রকার যুক্তি স্থির করিয়৷ এলিজিবেথ একান্তচিত্তে পরমেশ্বরের নিকট এই বলিয়। প্রার্থনা করিতে লাগিলেন, “হে পরমেশ্বর ! যেন অামার প্রার্থন। পিতা মাতার সম্মত ও আমার মনোবাঞ্ছা পরিপুর্ণ হয়।” - অনন্তর এলিজিবেথ পিতার নিকট ধীরে ধীরে উপস্থিত হইয়া ক্ষণকাল তাহার পশ্চাতে নিস্তব্ধ হইয়া দণ্ডায়মান থাকিলেন, এবং মনে করিলেন, পিতা অবশ্যই তাছাকে , ডাকিয় জিজ্ঞাসিবেন ও তাহার সঙ্গে কথা বাৰ্ত্ত কহিরেন। কিন্তু যখন দেখিলেন যে কিছুতেই তাহার অন্তঃকরণ শান্ত । হইতেছে না, তখন তিনি আর নিস্তব্ধ ভাবে থাকিতে না