পাতা:এলিজিবেথ.pdf/৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

এলিজিবেথ। । ৪৩ আলিঙ্গন করিয়া নয়ন জলে তাহীদের সর্বাঙ্গ অভিষিক্ত করিতে লাগিলেন । মধ্যে মধ্যে গদগদ স্বরে কহিতে লাগিলেন, “ হা পরমেশ্বর ! আমি মোইপ্রযুক্ত যে অকৃতজ্ঞত। প্রকাশ করিয়াছি এবং না বুঝিতে পারিয়া বার বার প্রার্থনা করিয়৷ তোমাকে যে বিরক্ত করিয়াছি, অামার সে সকল অপরাধ ক্ষমা কর, এবং এই সকল অপরাধ করিয়া আমি যে ঘোরতর দণ্ডের উপযুক্ত হইয়াছি, সে দগুহইতেও পরিত্রাণ কর ।” 參 sł পরমেশ্বরের নিকট এই প্রকার স্তুতি করিতে করিতে ক্রমে ক্রমে সেই প্রবল শোকাবেগের কিঞ্চিৎ হ্ৰাস হইলে পর স্পৃিঙ্গর কন্যাকে সম্বোধন করিয়া কছিলেন, “ বৎসে ! এলিজিবেথ! তুমি যে সকল বিষয় জানিতে বাসনা করিয়াছ, মামি প্রতিজ্ঞ করিতেছি তোমার নিকট তাহা অাদ্যোপান্ত বিবরণ করিয়া কহিব, কিন্তু তোমাকে দিন কতক কাল অপেক্ষা করিতে হইবেক । অন্তঃকরণের যে প্রকার বিকার ও ব্যক্তিক্রম জন্মিয়াছে দেখিতেছি, তাহাতে আজি বলিতে কোন মতেই সমর্থ নছি। বিশেষতঃ তোমার গুণে আমি সে সমস্ত দুরবস্থার কথা এমনি বিস্মৃত হইয়। গিয়াছি, যে তাহ৷ স্মরণ করিবার জন্যও আমাকে বিশেষ চেষ্টা পাইতে হইবেক।” , । - ভক্তিমতী এলিজিবেথ পিতার মুখছইতে এই সকল কথা শুনিয়া আর দ্বিরুক্তি করিলেন না। পিত। যখন ইচ্ছ। তখন বলিবেন এই মনে করিয়াই ধৈৰ্য্য পুৰ্ব্বক কাল প্রতীক্ষা করিতে লাগিলেন। প্রতীক্ষা করিতে লাগিলেন বটে কিন্তু পিতার অনুমতি লাভ দুষ্কর হইয়। উঠিল। • কারণ তাহার মনের ষেটি কল্পনা, তাহার পিতা তাহ। অবিকল জানিতে পারিয়াছিলেন। এই হেতু স্পৃিঙ্গরের অন্তঃকরণে এই ভয় উপস্থিত হইল যে কন্যার নিকট সেই