পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Yo Vo पैठिङ्ानिक द्धि । না । এই জন্য কেহ কোন বিপদে পড়িলে, তিনি ব্ৰাহ্মণ দ্বারা অনুরোধ করাইতেন। সীতারাম যখন প্ৰসিদ্ধ রামসাগর দীর্ঘিকা খনন করিবার আজ্ঞা দেন, তখন বলিয়াছিলেন যে, কোন নির্দিষ্ট স্থান হইতে তাহার সেনাপতি মোনাহাতি তীর নিক্ষেপ করিলে, ঐ তীর যতদূর গিয়া পড়িবে, ততদূর পর্য্যন্ত দীঘিঁকা খনিত হইবে। সেরূপ হইলে দেওয়ান মহাশয়ের হৰ্ম্ম্যবাটিকাও দীঘির্ষকাতলে পতিত হইত। এজন্য দেওয়ান মহাশয় একদা প্ৰাতে কয়েকজন বিশিষ্ট ব্ৰাহ্মণকে সম্মুখে লইয়া সীতারাম যেখানে প্রাতে আহিক করিতেছিলেন, সেই স্থানে উপনীত হইলেন। ব্ৰাহ্মণদিগের কাহারও কাহারও জমি উক্ত সীমার মধ্যে পড়িয়াছিল। ঐ সকল ব্রহ্মোত্তর সম্পত্তি সীতারামেরই প্ৰদত্ত। পুনরায় উহা দীর্ঘিকা খননের জন্য গ্ৰহণ করিলে দত্তাপহারী হইতে হয়। সুতরাং সীতারাম ব্ৰাহ্মণগণের অনুরোধ প্ৰত্যাখ্যান করিতে পারিলেন না। তাহাদের জমি বাদ দিয়া দীর্ঘিকা খনিত হইল । সীতারামের নিকট কোন দুঃসংবাদ প্রেরণ করিতে হইলে তাহাও ব্রাহ্মণ দ্বারা প্ৰদত্ত হইত। এরূপ নিষ্ঠাবান ব্ৰাহ্মণভক্ত ব্যক্তির প্রতি ঘৃণিত চরিত্রের আরোপ সমীচীন বলিয়া বোধ হয় না । ষ্টয়ার্ট প্রভৃতি বৈদেশিকগণ সীতারামকে অত্যাচারী জমিদার বলিয়৷ বৰ্ণনা করিয়াছেন। কিন্তু তঁহার জীবনে গো ব্ৰাহ্মণ বা স্ত্রীলোকের প্রতি অত্যাচারের পরিচয় পাওয়া যায় নাই। এমন কি তিনি শত্রুর প্রতিও কোন অস্বা, ভাবিক অত্যাচার করিয়াছিলেন বলিয়া জানিতে পারা যায় না। র্তাহার সেনাপতি কর্তৃক পরমশক্রি আবু তোরাব নিহত হইলে, তিনি অত্যন্ত দুঃখিত হইয়াছিলেন। র্তাহার শত্ৰুগণ যেরূপ কপটাচার দ্বারা গুপ্তভাবে তাহার সেনাপতিকে নিহত করিয়াছিলেন, তিনি কখনও যুদ্ধে সেরূপ কপটাচার প্রদর্শন করেন নাই। সম্মুখ সমরে যুদ্ধ করিতে করিতেই তিনি শক্রহস্তে আত্মসমৰ্পণ করিয়াছিলেন, এবং অবশেষে ধৰ্ম্মনাশ বা সন্মানহানির ভয়ে অঙ্গুৱীয় কমধ্যস্থ বিষ লেহন করিয়া জীবনান্ত করেন। উপন্যাসে দেখিতে পাই, সীতারাম চিত্তবিশ্রামেই অধিকাংশ সময় রমণীরূপ