পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SVOly ঐতিহাসিক চিত্ৰ । আমি কোন বাক্সে রাখিয়াছি।” পরে অনেক অনুসন্ধানের পর একটি ভগ্ন টিনের বাক্সের ভিতর তাহাকে পাওয়া গেল। এই কোহিনুর ঘটনা হইতে রণজিৎ অপরকে কি প্ৰণালীতে পেষণ করিতেন, তাহ অবগত হওয়া যায়। ক্রমশঃ চতুৰ্য, ভয়প্রদর্শন, বলপ্রয়োগ প্রভৃতি বিভিন্ন উপায়ে কাৰ্য্য সিদ্ধ করা হইত, এবং অবশেষে বাহিক ভাব রক্ষা করিবার জন্য একটি ক্ষুদ্র অভিনয়ের ব্যবস্থা হইত। এ সকল বিষয়ে এরূপ নিষ্ঠুর চিত্ত হইলেও তিনি অনেক সময়ে দেশীর ংস্কারাদি না মানিয়া চলিতে পরিতেন না। ১৮৩১ খৃষ্টাব্দে লর্ড বেণ্টিঙ্কের সহিত সাক্ষাৎ করিতে যাইবার সময় যখন শতদ্রু পার হইবেন, তখন তিনি কোন রূপ বিশ্বাসঘাতকতা হইবে এরূপ মনে আশঙ্কা করিয়া পণ্ডিতদিগকে ডাকাইয়া শিখ “গ্রন্থ।” দেখিয়া গবৰ্ণর জেনারেলের সহিত র্তাহার সাক্ষাতের কি রূপ ফল হইবে তাহ বলিতে বলিলেন। র্তাহারা ফল শুভ হইবে বলাতেও তিনি বিশ্বাস করিলেন না। তিনি উহার কোন প্ৰত্যক্ষ প্ৰমাণ জানিতে চাহিলেন। উহাতে পণ্ডিতগণ বলিলেন যে, আপনি দুইটি ফল লইয়া একটি রাজা ও অপরটি রাজপুরুষের নিমিত্ত উপহার দিবেন এবং যদি দুইটাই তৎক্ষণাৎ সাদরে গৃহীত হয়, তাহা হইলেই ফল শুভ বুঝিবেন। তিনিও দুইটী ফল হস্তে করিয়া ৪০ ০০ অশ্বারোহী শরীররক্ষকের সহিত চলিলেন । যখন গবৰ্ণর জেনারেলের হস্তী তাহার নিকট আসিল, তিনি ফল দুইটী সম্মুখে ধরিলেন এবং সে দুইটাই সহাস্যমুখে গবৰ্ণর জেনারেল গ্ৰহণ করায়, রণজিতের চিন্তা দূর হইল এবং তিনি সাহস করিয়া বেণ্টিঙ্কের সহিত এক আসনে বসিয়া পথ দিয়া চলিলেন এবং সমস্তই পূর্বকথিতমত শুভ হইল। শ্ৰীবোধিসত্ত্ব সেন ।