পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
জাতীয় ইতিহাস চর্চ্চার ফল।

করিতেছে—আমি ইহাদের উত্তরাধিকারী। এই বিরাট জাতীয় ইতিহাসচর্চ্চায় আমার মনে যে স্ফূর্ত্তি ও উৎসাহের সঞ্চার করিবে—আমার যে লুক্কায়িত শক্তির সন্ধান বলিয়া দিবে ও উদ্যম উদ্বোধন করিবে—প্রাচীনকালে তাঁহারা যাহা করিয়াছিলেন—তাহা শুনিতে শুনিতে আমিও যে সেইরূপ উজ্জ্বল ও গৌরবান্বিত আদর্শের সন্নিহিত হইতে পারি, সেই ভরসা নবভাবে উজ্জীবিত হইয়া আমার মধ্যে যেরূপ কার্য্য করিবে—সেরূপ আশা, সেইরূপ প্রাণসঞ্চারিণী শক্তি আমরা আর কিসে পাইব?

 তার পর অতীত ইতিহাসের পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায় কারণ এবং সেই কারণের অবশ্যম্ভাবী ফল— স্পষ্টরূপে নির্দ্দিষ্ট হইয়াছে—সেই ফলাফলের বিচার দ্বার এবং আমাদের জাতীয় অভাব ও শক্তি কোথায় তাহা আবিস্কার করিয়া আমরা ভবিষ্যগঠনে আমাদের হস্ত সবল করিয়া লইতে পারিব।

 সমস্ত ভারতবর্ষের ইতিহাস যে সকল শিক্ষা আমাদিগকে প্রদান করিবে, বিশেষ ভাবে বঙ্গদেশের ইতিহাসপাঠে আমরা আবার আমাদের প্রকৃতির তদপেক্ষা ঘনিষ্ঠতররূপ পরিচয় পাইব। আমরাও পৃথিবীতে নিতান্ত নগণ্য ছিলাম না, এক সময়ে বাঙ্গালীরা চীন, জাপান প্রভৃতি দেশের সভ্যতাকে নবশ্রী প্রদান করিয়াছিল, এক সময়ে জাবা ও বালিদ্বীপে বাঙ্গালী উপনিবিষ্ট হইয়া পররাজ্যে হিন্দুসভ্যতা চিহ্নিত। করিয়াছিল,—সিংহলে বিজয়কেতু উড্ডীন করিয়াছিল। অল্পদিন হইল ঢাকার মসলিন্ জগতের বিলাসসামগ্রীর শীর্ষস্থান অধিকার করিয়া বিলাতে পর্য্যন্ত প্রভুত্ব স্থাপন করিয়াছিল, তখন ম্যানচেস্টার বিস্ময়পূরিত চক্ষে ভারতীয় শিল্পের সৌন্দর্য্য দর্শনে স্বীয় অপটুত্ব ভাবিয়া ক্ষুব্ধ ও কুণ্ঠিত ছিল,—আমাদের দেশ পৃথিবীর মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ ন্যায়শাস্ত্রের সৃষ্টি করিয়াছিল এবং আমাদের দেশের একজন দীনদরিদ্র পল্লীব্রাহ্মণ জগতে যে অপূর্ব প্রেমধর্মের শিক্ষা দিয়া গিয়াছেন—পৃথিবী সেই অতিসাত্ত্বিক ধর্ম্মতত্ত্ব গ্রহণে আজিও সমর্থ হয় নাই,—সুতরাং প্রাদেশিক ইতিহাসচর্চ্চায় আমাদের জাতীয় শক্তিরই বিশেষভাবে আবিষ্কার হইবে,—আমরা এককালে জগতকে কোন কোন বিষয়ে শিক্ষা দিয়াছি,—এই জ্ঞান বদ্ধমূল হইলে আমরা