পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রণজিৎ সিংহ ও ইংরাজ। tvot নেতাগণ ইহা বুঝিলেন যে যদি কোন দিন এই মহারাজার অহঙ্কারাদৃপ্ত সৈন্যগণ । অদম্য ইংরাজ সিপাহীর সহিত যুদ্ধে সম্মুখীন হয় তাহা হইলে বেশ কিছুদিন যুদ্ধ চলিবে । এই সাক্ষাতের ফলে সিন্ধুদেশে মহারাজের হস্তক্ষেপের পূৰ্ব্বেই ইংরাজ হস্ত, ক্ষেপ করিবেন গবৰ্ণর জেনারেল ইহাই স্থির করিলেন। ইংরাজের বহুদিন হইতেই বিশ্বাস ছিল যে সিন্ধু নদে ব্যবসায়ের অনেক সুবিধা আছে কিন্তু এপৰ্য্যন্ত সে ব্যবসায়ে কেহ হস্তক্ষেপ করেন নাই। রণজিৎ সিন্ধুদেশ সুরক্ষিত নহে জানিয়া উহার রক্ষক হইতে ইচ্ছা প্ৰকাশ করিয়াছিলেন। লর্ড বেন্টিঙ্ক বুঝিলেন যে ইংরাজের হস্তক্ষেপ করিতে আর অধিক বিলম্ব করা চলিবে না। মহারাজকে শঙ্কিত না করিয়া কিরূপে সিন্ধুদেশ পরিদর্শন ও তত্ৰস্থ আমীর গণের সহিত ৰা্যবসায় খুলিতে পারা যায়। এই সমস্ত অতি সহজেই পুরণ হইল। বম্বে হইতে একজন কৰ্ম্মচারীর সহিত সিন্ধুনদের পথ দিয়া রাজা চতুর্থ উইলিয়মের নিকট হইতে উপঢৌকনস্বরূপ অনেকগুলি বিলাতী গাড়ীর ঘোড়া পঞ্জাব রাজের নিকট প্রেরিত হইল। রণজিৎ অশিক্ষিত হইলেও তঁাহার ক্ষুদ্র রাজ্যের মধ্যে থাকিয়াই তিনি । অনেক জ্ঞানলাভ করিয়াছিলেন। তিনি শ্বেতাঙ্গ ও কৃষ্ণাঙ্গ উভয়কেই ভাল করিয়া জানিতেন। ইংরাজের এই ব্যবস্থা তাহার চক্ষে ধূলি দিতে পারে নাই। । তিনি স্বয়ং যেরূপ ছিলেন অপরকেও সেই রূপ দেখিতেন। “কোম্পানি” শব্দে ; তিনি কতকগুলি ক্ষমতাশালী ব্যক্তি আপনাদিগের উপকারার্থ দলবদ্ধ হইয়া ভারতে আসিয়াছেন এইরূপই বুঝিতেন। এক জন ব্যক্তিই হউক কি কোম্পানিই হউক তঁাহার। ইহা দৃঢ় বিশ্বাস ছিল যে উভয়েরই স্বাৰ্থসিদ্ধি একমাত্ৰ উদ্দেশ্য । নৈতিক বন্ধন কিম্বা আদর্শ এ সকল তাহার চিন্তাধিগম্য ছিল না । ১৮০৮ খৃষ্টাব্দে কোম্পানি কোন এক ফরাসি সেনাপতি কর্তৃক যাহার নাম তিনি বিশ্বত হইয়াছেন—ভারত আক্ৰমণ আশঙ্ক রটাইয়া কিরূপে তাহার কা নিকট একটি প্রদেশ লইয়াছেন তাহা তাহার স্মরণ ছিল। এখনও তিনি । স্পষ্ট বুঝিয়াছিলেন যে কতকগুলি আমীন ও সুচতুর কৰ্ম্মচারীর সহিত র্তাহাকে স্থত।