পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/২৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Roby ঐতিহাসিক চিত্ৰ । তবে “মুনীনাঞ্চ মতিভ্ৰমং” সুতরাং দুঃখের বিষয় হইলেও বিস্মিত হইবার किछुछ्रे नाछे - শ্ৰীঅশ্বিনীকুমার সেন। সাময়িক-প্ৰসঙ্গ । রুস-জাপান যুদ্ধ-সুদূর প্রাচ্যের সেই মহাসমরাগ্নি অদ্যাপি সমান ভাবেই প্ৰজ্বলিত হইতেছে । মুক ডেনের নিকট উভয়পক্ষ সমবেত রহিয়াছে বটে, কিন্তু আর্গার বন্দরের ব্যাপারই গুরুতর হইয়া উঠিয়াছে। জাপানের অপরিসীম পরাক্রমে বীরবার ষ্টসেল আর আত্মরক্ষায় সমর্থ হইলেন না । তিনি জাপান সেনাপতির নিকট আত্মসমর্পণ করিয়াছেন। ১৯০৫ খৃঃ অব্দের ১লা জানুয়ারি জাপানসেন বীরপরাক্রমে আর্থার বন্দরে প্রবেশ করিয়াছে । জাপানের নবসূৰ্য্যাঙ্কিত বিজয় নিশান আজ আর্গার বন্দরে উডতীয়মান হইল। প্ৰায় এক বৎসর সোৎসাহে যুদ্ধ করিয়া অগণ্য 'সেনাকে সমরক্ষেত্রে বিসর্জন দিয়া জাপান আর্থরবন্দর অধিকারে সক্ষম হটলেন । জাপানের এই অলৌকিক বীরত্ব চিরদিন জগতের ইতিহাসেই বিঘোষিত হইলে । চীন-জাপান যুদ্ধের পর জাপান আর্থার বন্দর প্রাপ্ত হইয়াছিলেন, কিন্তু রুসিয়া ভয় প্ৰদৰ্শন করিয়া জাপানের হস্ত হইতে তাহা কাড়িয়া লন ; এই অপমান জাপান এত দিন হৃদয়ে পোষণ করিয়াছিলেন। ১৯০৫ খৃঃ অব্দের প্রথম দিবসে তাহারা সেই অপমানের প্ৰতিশোধ দিয়া আর্থারপন্দর অধিকার করিয়া বসিয়াছেন । নববর্ষের নব। সুৰ্য্যালোকে জাপানের নব। সূৰ্য্যদীপ্ত নব নিশান ঝলষিত হইয়া উঠিয়াছিল। রুসিয়া অনেক চেষ্টা করিয়াও আর্থার বন্দর রক্ষা করিতে সমর্থ হইলেন না। " জাতীয় মহাসমিতি-ডিসেম্বর মাসের শেষে এবার বোম্বাই নগরে জাতীয় মহাসমিতির অধিবেশন হইয়াছে। ভারতহিতৈষী শ্ৰীযুক্ত সার হেনরি কটন মহোদয় এবার সভাসমিতির সভাপতির আসন গ্ৰহণ করিয়াছিলেন।