পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৩৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩৭২ ৷ ঐতিহাসিক চিত্ৰ । উপাধির জন্য অনুরোধ করিয়া পাঠান। সেই সময়ে মহিমাপুরের শেঠদিগের গদীর উন্নতি চরমসীমায় উপনীত হইয়াছিল। তাহদের গদীতে অনবরত ১০ কোটি টাকার কারবার হইত। সমগ্ৰ ভারতে এমন কি সমগ্ৰ পরিজ্ঞাত জগতে তাহদের ন্যায় শ্রেষ্ঠ আর কেহ বিদ্যমান ছিল না । সুতরাং বাদসহ র্তাহাদিগকে তাহদের বংশের সম্মানীয় উপাধি যে প্ৰদান করিবেন, তাহাতে সন্দেহ কি ? সেই জন্য আহম্মদ সাহের রাজত্বের প্রথমবর্ষে ১১৬১ হিজরী বা ১৭৪৮ খৃঃ অব্দে মহাতাবর্চাদ বাদসহ দরবার হইতে “জগৎ শেঠ’ উপাধি ও তদুপযোগী খেলাতাদি প্ৰাপ্ত হন। যদিও মহাতাবর্চাদ জ্যেষ্ঠ হওয়ায় তিনি জগৎ শেঠ উপাধি লাভ করিতে সক্ষম হইয়াছিলেন, তথাপি স্বরূপচাদ তাহার দক্ষিণ-হস্তস্বরূপ থাকায়, বাদসহ-দরবার হইতে তিনিও সম্মাননীয় উপাধিলাভ করেন, বাদসহ তাহাকে “মহারাজ” উপাধিতে ভূষিত করিয়াছিলেন। আমরা পূৰ্ব্বাপর বলিয়া আসিয়াছি, নবাব আলিবর্দি খাঁ প্রচুর ক্ষমতাশালী নবাব হইলেও তাঁহার রাজত্ব ঘোরতর অশান্তিময় হইয়া উঠিয়াছিল। তিনি আফগান সেনাপতিদিগকে পদচ্যুত করিলে তাহারা বিহার প্রদেশে উপস্থিত হইয়া এক ভীষণ বিদ্রোহের সূচনায় প্ৰবৃত্ত হয়। এদিকে রঘুজীর পুত্র জন্য সসৈন্যে উড়িষ্যা প্রদেশে উপস্থিত হইয়া নানাপ্রকার উৎপাত আরম্ভ করেন নবাব প্রথমে উড়িষ্যা যাত্ৰা করিয়া মহারাষ্ট্রীয়দিগকে দমনে প্ৰবৃত্ত হন। জনজী নবাবের সহিত যুদ্ধে পরাজিত হন। তাহার পর বর্ষ উপস্থিত হওয়ায় নবাব মুর্শিদাবাদাভিমুখে প্ৰত্যাবৃত্ত হন। এই সময়ে শেঠদিগের ক্ষমতা অত্যন্ত প্ৰবল হইয়া উঠে। নবাব তাঁহাদের পরামর্শে সমস্ত কাৰ্য্য করতেন, এবং তাহারা নবাবের এরূপ প্ৰিয়পাত্র ছিলেন যে, নবাব কদাচ তাঁহাদের অনুরোধ উপেক্ষা করিতে পারিতেন না। বঙ্গরাজ্যের সমুদায় জমীদারগণ শেঠদিগের দ্বারা রাজকোষে রাজস্ব প্রেরণ করিতেন। তাহদের রাজস্বপ্রদানে কোন ক্ৰটি উপস্থিত হইলে, তাহারা শেঠদিগের শরণাগত হইতেন। শেঠেরা। নবাবের নিকট তাঁহাদের জন্য অনুরোধ করি নবাবু তৃষ্ণুক্ষণাৎ সেই অনুরোধ রক্ষা করিতেন। এই সময়ে ইংরেজ প্ৰভু