পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


VO) ঐতিকহাসিক চিত্র। মধ্য হইতে অনেকগুলি বহুমূল্য উপহার গ্ৰহণ করিয়াছিলেন। তঁহাদের ধনতৃষ্ণা সম্বন্ধে সাধারণে নানারূপ বিশ্বাস করিত বলিয়া ঐ রূপ সন্দেহের উৎপত্তি হইয়াছিল। চিত্রকরগণ ঐ রূপ সন্দেহের বশবৰ্ত্তী হইয়াই তাহাদিগকে নানারূপে চিত্ৰিত করিয়াছিলেন। সেই সমস্ত চিত্র রাজাবমাননার চূড়ান্ত দৃষ্টান্তস্বরূপ, অনেকগুলি অত্যন্ত ব্যক্তিগত হইয়াও পড়িয়াছিল। সুখের বিষয় তজ্জন্য কাহাকেও রাজকারাগারে স্থান পাইতে হয় নাই। রাজপুরুষগণের মধ্যে চ্যান্সেলার লর্ড থলো চিত্রকরগণের হস্তে অনেক প্রকারে চিত্ৰিত হইয়াছিলেন। তিনি হেষ্টিংসের একজন বন্ধু ও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। সেই জন্য চিত্রকরগণ র্তাহাকে নানারূপে হেষ্টিংসের সহিত সংযোজিত করিয়াছিলেন। ঐ সমস্ত চিত্রে হেষ্টিংস অদ্ভুত ভাবে চিত্রিত হইয়াছিলেন। কিন্তু তাহার পক্ষ সমর্থক কোন কোন ইংরেজ লেখক বলিতে চাহেন যে, ব্যঙ্গ-চিত্ৰ সমূহে হেষ্টিংস নানা প্রকারে চিত্রিত হইলেও চিত্রকরগণ র্তাহাকে শান্ত ও গম্ভীর মূৰ্ত্তিতে অঙ্কিত করিতেন। অন্য দিকে ফক্স প্রভৃতি তাঁহার অভিযোগকারিগণ কদৰ্য্য ও উগ্রভাবে চিত্রিত হইতেন। উক্ত লেখকগণের অভিপ্ৰায় এই যে, হেষ্টিংস সম্বন্ধে চিত্রকরগণের মনে অনেক.বিষয় স্থানলাভ করিলেও, তাহারা হেষ্টিংসকে রাক্ষস প্ৰকৃতি মনুষ্য বলিয়া ধারণা করেন নাই। ব্যঙ্গ-চিত্ৰ সম্বন্ধে এই রূপ মাস্তব্য আমরা সমীচীন বলিয়া মনে করি না । কারণ, কোন কোন চিত্রে হেষ্টিংসকে প্রকৃত রাক্ষস সংজ্ঞা প্ৰদান করিয়া তাহার আস্তক বলে নরমুণ্ড প্ৰবেশ করান ও হইয়াছে, কোন স্থানে হেষ্টিংসকে রক্তসমুদ্রে সন্তরণ করানও হইয়াছে। ইহাতে চিত্রকরগণের মনে হেষ্টিংস সম্বন্ধে কিরূপ ধারণা হইয়াছিল, তাহা সাধারণে অনায়াসেই বুঝিতে পারিবেন। ঐ সমস্ত চিত্রের মধ্যে অনেকগুলিতেই হেষ্টিংসকে ধন লুণ্ঠনকারীরূপে অঙ্কিত করা হইয়াছে। অধিক ধন উপার্জন করিয়া ধনেশ্বর হইয়া বসিলে মানুষ্যের ফেরূপ ভাব হইতে পারে, চিত্রকরগণ অনেক স্থলে হেষ্টিংসকে সেইরূপ ভাবেই চিত্ৰিত করিয়াছেন। চিত্রকরগণের দৃষ্টি সাধারণতঃ হেষ্টিংসের লুষ্ঠিত ধনরাশির উপর নিপতিত হওয়ায়, তাহারা তাঁহাকে হৃষ্টচিত্ত ধনেশ্বরের ন্যায় চিত্ৰিত করিয়াছিলেন। কিন্তু যে যে