পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সরকার বাজুহা । • 8OS স্ম ৫ানে এই বাইশ পরগনা শাসন করিতেছিলেন সেই সময় সরকার বাজুহায় উত্তর প্রদেশে সুসঙ্গের রাজা স্বাধীনতা রক্ষা করিয়া স্বাধীনভাবে রাজত্ব করিতে ছিলেন। দশ কাহনীয়া সেরপুরের উভয় ভাগ করৈবাড়ী পাহাড় হইতে সুসঙ্গের পাহাড়ের পূর্ব সীমা পৰ্যন্ত এই বিশাল পাদুড় রাজ্য—“মুলকে স্বসঙ্গ” নামে অভিহিত হইত। সুসঙ্গে তখন রঘুনাথ সিংহের রাজত্ব। আকবর সাহের মৃত্যুর পর রঘুনাথ মোগল সিংহাসনের অধীনতা স্বীকার করেন ও সম্রাট জাহাঙ্গীর কর্তৃক রাজা উপাধিতে ভূষিত হন । মসনদ আলি ঈশা খাঁ ও রঘুনাথ সিংহ ব্যতীত সেই সময় সরকার বাজুহায় অন্য কোন শাসন কৰ্ত্তা ছিলেন অবগত হওয়া যায় না । ঈশা খাঁর শাসন প্রারম্ভের পূর্ব হঠতেই ব্ৰাহ্মণ কায়স্থ ও বৈদ্যগণ রাঢ় ও বারেন্দ্ৰ ভূমি হইতে ক্ৰমে অল্পে অল্পে এতদ্দেশে আসিতেছিল। কিন্তু ইহাদের ক্ষমতা বিস্তারের বিষয় কিছুই অবগত হওয়া যায় না | এতদ্দেশে ঈশা খার শাসন প্ৰবৰ্ত্তিত হইলে মুসলমান গণও বহুপরিমাণে এ প্রদেশে আগমন করিতে থাকে ও বিরল বসতি অরণ্য ভূমি জনকোলাহল মুখরিত হইয়া উঠে। এই সময় বহু পীর ফকির আউলিয়া সু এতৎ প্রদেশে প্ৰবেশ করিয়া এক এক স্থানে এক একটা দরগা স্থাপন করিয়াছিল এবং ঈশার খ্যার অধঃপতনের পর ইহারাই ক্রমে ঈশা খাঁর বংশর গণের এক একটি পরগণা করিয়া অধিকার করিয়া লইয়াছিল । O এই জন বৃদ্ধি দেখা দিলে এ প্রদেশে আদিম অধিবাসী, কোচ হাজং ও অন্যান্য অগুজ ভূঞাগণ নিস্তেজ হইয়া পড়ে ও অল্পে অল্পে শাসন দণ্ড পরিত্যাগ করিয়া পৃষ্ঠ ভঙ্গ দেয়, আগন্তুক গণ দ্রাহীদের স্থান অধিকার করিয়া

  • কথিত আছে এই সময় ৩৬০ জন আউলিয়া বা দরবেশ পদ্মা নদী পার হইয়া পূর্ব বঙ্গে আগমন করেন । ইহাদের অনেকে ষার্তমান ময়মনসিংহ জেলায় ও আগমন করিয়াছিলেন এবং ক্ৰমে ক্ৰমে প্ৰত্যেকে এক এক পরগণা অধিকার করিয়া রাজ্য শাশন ও ধৰ্ম্মপ্রচার করিতে থাকেন । পদ্ম নদীর পার হইতে শ্ৰীহট্ট পৰ্যন্ত এই বিস্তৃত স্থানের প্রতি পরগণায় এক একজন আউলিয়ার af TASS GisèG vises of