পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীর কাহিনী । । red লইয়া পৌছেন, কিন্তু তিনি বিপক্ষের কামানের গুলিতে প্ৰাণ ত্যাগ করিলে সাহমলার আজ্ঞাক্ৰমে কালাপাহাড় তৎপদে প্রতিষ্ঠিত হন”। * , ইহাতে স্পষ্ট বোধ হয় যে এক সময়ে ফতেয়াবাদের শক্তি কম ছিলনা, আত্মরক্ষণোপযোগী যুদ্ধ জাহাজ কামান বন্দুক ইত্যাদি তাহারা আপনারাই প্ৰস্তুত করিয়া লইতে পারিত। ঐ রূপ কারিকুরের সংখ্যা ক্ৰমেই বৃদ্ধি পাইতেছিল, “জাহানকোষা” কামান ঢাকার কৰ্ম্মকারের দ্বারাই প্ৰস্তুত হয়। আকবর সাহের রাজত্ব সময়ে এই সরকারের OS ski(6 ahun duq vra কর আদায় হইত ।। ৯০০ রণতরী এবং ৫০৭০০ সৈন্য এক প্ৰকার शॉरेष्ठ পারিত । আকবর বাদসাহের রাজত্বে ফরিদপুরের অন্তৰ্গত বিক্রমপুর পরগণায় একটী সমর্যাভিনয় দেখিতে পাই । কেদার রায়ের সহিত মোগল সেনাপতি মানসিংহের এই সজঘর্ষণ হয় । বারভুঞাগণের মধ্যে যদি কাহাকেও সৰ্ব্ব প্রথম আসন প্ৰদান করা কৰ্ত্তব্য হয়, আমাদের বিবেচনায়। তবে তাহা বিক্রমপুরের কেদার রায়েরই প্ৰাপ্য। ঈশা খাঁ মসনদ আলী সৰ্ব্ব প্ৰধান ছিলেন বটে। কিন্তু পরিণামে তিনিও মোগল পতাকামূলে মন্তক অবনত করিতে বাধ্য হইলেন। অধিকাংশই তৎপথাবলম্বন করেন, করিলেন না কেবল তিনটী মহাপ্ৰাণ, বিক্রমপুরের কেদার রায় ভুষণার মুকুন্দরায় ও যশোহরের প্রতাপাদিত্য। আকবরনামাতে কেদার রায় ও মুকুন্দরাম রায়ের নাম স্পষ্ট উল্লেখ আছে, জানিনা প্ৰতাপদিত্যের নাম উহাতে উল্লেখ নাই কেন । এমন কি এখন দেখা যায়, যে শীলাময়ী মানসূিংহ বঙ্গদেশ হইতে জয়পুর স্বীয় রাজধানীতে লইয়া গেল, তাহাও প্রতাপাদিত্যের গৃহদেবী নন, কেদার রায়ের গৃহাধিষ্ঠাত্রী দেবী বলিয়াই

  • ইলিয়ট ৬৭ পৃষ্ঠা। পূর্ববঙ্গে অনেক প্রস্তরনিৰ্ম্মিত দেবমূৰ্ত্তি দেখা যায়, কোনটী বা BBDD S SBD DBDD BBDS S gBD DYSSD DBBDDDDBDB S DBgB DBBD BB DS BD BB DD BBDDD DBBBD gDD DBDBD DBDB BBDDD DBBBD BLB

করিয়াছিল ।