পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৫৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জগৎশেঠ। eR? ব্যতীত নবাব সময়ান্তরেও অনেক বিষয়ে জগৎশেঠের পরামর্শ গ্ৰহণ করিতেন। সুতরাং নবাব দরবারে চিরদিনই শেঠদিগের সমভাবে সম্বন্ধ ছিল। • মহারাষ্ট্রীয়দিগের সহিত সন্ধি স্থাপিত করিয়া নবাব জীবনের অবশিষ্ট কাল শান্তভাবে কাটাইবেন মনে করিয়াছিলেন। কিন্তু তঁহার ভাগ্যে তাহা ঘটয়া উঠে নাই। যদিও বাহিরের অশান্তি নিৰ্বাপিত হইয়াছিল, তথাপি তাহার সংসার মধ্যে ঘোরতর অশান্তি প্ৰজ্বলিত হইয়া উঠে । নবাব আলিবর্দী খ সিরাজউদৌলাকে পুত্ৰসম প্ৰতিপালন করিয়াছিলেন, এবং তঁহাকে তঁাহার উত্তরাধিকারী মনোনীত করেন। কিন্তু তঁহার পরিবারস্থ অনেকে তাহাতে সন্তোষ লাভ করেন নাই। বিশেষতঃ র্তাহারা ঘোরতর ঈর্ষ্যানল প্ৰজালিত করিয়া নবাবের সংসারকে ভস্মীভূত করিবার উপক্রম করেন। র্তাহার জ্যেষ্ঠ কন্যা ঘসিটি বেগম সিরাজের বিপক্ষতাচরণে প্ৰবৃত্ত হন। शश्नल अश्म्रिा ७ র্তাহার পরিবারবর্গ ও সিরাজের সিংহাসন প্ৰাপ্তির বিরোধী হইয়া উঠেন। এই সমস্ত ঘটনা ঘটবার কিছু পূৰ্ব্বে মুর্শিদাবাদে একটি শোচনীয় ব্যাপার সংঘটিত হয়। হােসেন কুলী খাঁর হত্যাকেই আমরা সেই ব্যাপার বলিয়া উল্লেখ করি, তেছি। হোসেনকুলী ঢাকার নায়েব সুবা নবাবের জ্যেষ্ঠ ভ্রাতুষ্পপুত্র নওয়াজেস মহম্মদ খাঁর সহকারী ছিলেন। তাঁহার সহিত নওয়াজেসের পত্নী ঘসিটি বেগম ও সিরাজের মাতা আমিনা বেগমের অবৈধ প্রণয় সংঘটিত হওয়ায়, আলিবর্দী খার বেগমের পরামর্শে সিরাজ তাহার হত্যাকাণ্ড সম্পাদন করেন । তাহার আদেশে হোসেন কুলী নিহত হয়। হোসেন কুলীর হত্যায় অনেকে সিরাজের প্রতি বিরক্ত হইয়াছিলেন। কিন্তু আমরা ইহাকে সিরাজের একটি গুরুতর কৈলঙ্ক বলিয়া মনে করি না। কারণ, তিনি স্বীয় জননীর ধৰ্ম্মধ্বংসকারীকে হত্যা করিয়া আপনার পরিবারকে পাপের হস্ত হইতে রক্ষার জন্য চেষ্টা করিয়া ছিলেন, এবং আলিবর্দী খাঁর মহীয়সী বেগম তাহাতে র্তাহাকে উত্তেজিত করিয়াছিলেন। নবাব আলিবর্দীরও তাহা অজ্ঞাত ছিল না। : r অনেকে বিশেষতঃ নবাবের পরিবারস্থ সকলে সিরাজের প্রতি বিরক্ত হওয়ায় তাঁহাদের মধ্যে ঘোরতর অশান্তির সৃষ্টি হয়। অশান্তির অগ্নি প্ৰজ্বলিত