পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/১২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শঙ্করের মুণ্ডক ভাষ্য । > R Y তিনি আপনার জ্যেষ্ঠপুত্রকে ব্ৰাহ্মণ, উপনিষৎ, শ্রৌতসুত্ৰ, কল্পসূত্র, গৃহসুত্র, স্মৃতি পুরাণ, ব্যাকরণ, জ্যোতিষ ও গণিতাদি সর্বশাস্ত্র বা সর্ববিদ্যার প্রতিষ্ঠা বা আদর্শস্থান ব্রহ্মবিদ্যা বা বেদ শিক্ষাদান করিয়াছিলেন । , যিনি বেদের অধ্যাপক, যিনি অন্যান্য বেদবিৎ হইতে শ্ৰেষ্ঠ বা অশ্রেষ্ঠ, যিনি দেবতাগণের মধ্যে প্ৰধান বা অপ্রধান, যিনি মেরুপর্বতের উদ্ধতলে বাস করেন, পরন্তু নিম্নতলে নহে। অর্থাৎ অসৰ্ব্বব্যাপী, র্যাহার বড় ছেলে, ছোট ছেলে ও মেঝো ছেলে আছে ও ছিল, সেই ব্ৰহ্মা আত্মভূ বা স্বয়স্থ ব্ৰহ্মা বা পরমেশ্বর কিংবা জগদুৎপাদয়িত কি পালয়িতা হইতে পারেন না । ইনি দেবগণের মধ্যে শ্রেষ্ঠ ? অতএব ইন্দ্ৰাদি দেবগণ যেমন এক একজন স্বতন্ত্র পরমেশ্বর বা সৃষ্টিকৰ্ত্ত নহেন, তেমনই তজ্জাতীয় এই ব্ৰহ্মা ও পরমেশ্বর বা সৃষ্টিকৰ্ত্তা বলিয়া। কথিত বা বিবেচিত হইতে পারেন না । অবশ্য স্বস্ব ধৰ্ম্মগ্রন্থের পবিত্রতাসম্পাদন জন্য ভক্তগণ বলিয়া থাকেন যে, আমাদিগের বেদ বা বাইবেল বা ঐ রূপ অন্ততর। গ্ৰন্থ ঈশ্বর-প্ৰণীত ও ঈশ্বর-বাণী । কিন্তু উহা ভক্তির কথা ভিন্ন যুক্তির কথা নহে । কোন ধৰ্ম্মগ্রন্থ ঈশ্বর-প্ৰণীত বা তদুদিত হইতে পারে না ও নহে। সৃষ্টির বহুকাল পরে ভাষা সৃষ্টি ও ভাষাস্যষ্টির বহু যুগযুগান্তর পরে মানুষের মধ্যে কবিত্বের বিকাশ হইয়াছিল। ঐ সময় ভিন্ন ভিন্ন ঋষি, আপন মনে স্বাধীনচিত্তে বেদমন্ত্রের প্রণয়ন করেন । কিন্তু উহাতে ঈশ্বরের কোন হাতই নাই। অতএব শঙ্কর যে বলিতেছেন ব্ৰহ্মণঃ পরমাত্মানো বিদ্যাং ব্ৰহ্মবিদ্যাং ব্ৰহ্মণ বা অগ্ৰজেন উক্ত ইতি বা ব্ৰহ্মবিদ্যা ইহা-অমূলক বিবৃতি। বেদ কেবল পরমার্থতত্ত্ববিষয়ক পরমাত্মবিদ্যা নহে, উহাতে যুদ্ধ, বিগ্ৰহ, মারণ, উচ্চাটন ও বশীকরণ এবং হিংসাবিদ্বেষ ও নানা সংশয়বাদের কথা আছে । অনেক সাধারণ সাংসারিক কথাও