পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/১৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নেপালের প্রাচীন পুথি । δο η ক্যাথলিকেরা যেমন পাদ্রীদিগের নিকটে গিয়া মধ্যে মধ্যে confession করে, এই স্বীকার ক্রিয়া ও তদ্রুপ । নেপালী ভাষায় ইহার নাম “দেশান ।” হােত এক প্ৰকার-“ আমি যে কোন প্ৰকার পাপ কাৰ্য্য করিয়াছি, হে পভো ! তুমি তাহা মার্জন কর । জ্ঞানতঃ, অজ্ঞানতঃ, নির্বোধিতা 1শতঃ অথবা পূৰ্ব্বজন্মের সংস্কার বশতঃ, যাহা কিছু পাপ করিয়াছি, তাহা আমি স্বীকার করিতেছি এবং তজ্জন্য পশ্চাত্তাপ করিতেছি। আমাকে সকলে ক্ষমা করুন। পূৰ্ব্বেকার ও বর্তমানের পাপ হইতে আমাকে মুক্ত করুন এবং ভবিষ্যতের পাপ হইতে আমাকে স্বতন্ত্র করুন ।” অনন্তর গুরুসম্মুখে দাড়াইয়া করযোড়ে কহিতে হইবে। “আমি আমার পাপ পীকার করিয়া এক্ষণে বুদ্ধের শরণাগত হইলাম। আমার অজ্ঞান করা হউক, তিনি আমার রক্ষক হউন, তিনি অবিনাশী, করুণাসিন্ধ ও সািবজ্ঞ । আমি সকল মানুষ্যের সম্মুখে ইহা স্বীকার করিতেছি।” ইহাতে গুরু কহিবেন “উত্তম, উত্তম, হে বৎস । উত্তম । এক্ষেণে নিৰ্য্যাতন ! ক্ৰয় কর ।” তদন্ত র শিষ্য, চাউল, ফুল, জল ও মিষ্ট দ্রব্য লইয়া নিৰ্য্যাতন ক্ৰিয়া সম্পাদন করে। এবং এই মন্ত্র উচ্চারণ করেSKLSDS BDDBDSi SBDBDDBBD BDBBB BB DBDS S DD DKSKDSDD BBBS আমি এই মণ্ডলে তোমাকে পুষ্পপাদি অৰ্পণ করি । তুমি পাপ মোচনকারী ও সৰ্ব্ব সুখদাতা ।” এই মন্থের পরে আর একটা মন্ত্র পড়িতে ঈয়, ৩াহা এই—“ ওঁ ! বুদ্ধ রত্নকে নমস্কার । এই দয়াময় প্ৰভু আমার নৈবিদ্য গ্ৰহণ করুন এবং আমাকে স্থির রাখুন। ওঁ আম সৃৎ ভাগ ফাঁট স্বাহা ।” এই মন্ত্র তিনবার পাঠ করিতে হয়, একবার ধৰ্ম্মের উদ্দেশে, একবার সজেলার উদ্দেশে এবং একবার মূলমণ্ডলের উদ্দেশে । ক্রিয়া শেষ হইবার সময়ে নিম্নলিখিত মন্থটি আবৃত্তি করা আবশ্যক । “হে দেবতা ও দৈত্যDD S DD BB BBBDS SD BDBDBBBD S S S DBDBBBD S SDDDD যক্ষগণ । হে গ্ৰহগণ ! হে মোক, ইন্দ্ৰ, হ্রদ, দেবদেবী ও অপসারগণ ।