পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/২৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একটিী भूब्राउन ठूकौं । NOo Y লব্ধি হয় যে, বাঙ্গলার তদানীন্তন রাজধানী ঢাকা নগরীকে সুরক্ষিত করিবার জন্ত এইরূপ স্থানে দুর্গ নিৰ্ম্মাণ করা আবশু্যকীয় হইয়া পড়িয়াছিল । ইদ্রাকপুর মেঘনা, ধলেশ্বরী ও লক্ষ্য এই তিন নদীর সঙ্গমস্থলে অবস্থিত । পুর্ববঙ্গলা নদীবহুল স্থান। শক্রিগণের ঐ প্রদেশ আক্রমণ করিতে হইলে জলযুদ্ধ ভিন্ন অন্য উপায় ছিল না ; এবং সাধারণতঃ ঐ প্রদেশে নৌযুদ্ধ সংঘটিত হইত। ইদ্রাকপুর যেরূপ স্থানে স্থাপিত, তাহাতে ই ৩াকে ঢাকার প্রবেশদ্বার ( (itute of 1)acecra ) বলিলে, অতু্যক্তি হয় না । ঢাকা নগরী "আ ক্ৰমণ করতে হইলে, ঐ স্থান অতিক্ৰমণ করিতে হইত এবং ঐ পথ ভিন্ন অন্য জলপথ ছিল না। সুতরাং ঐ স্থান সুরক্ষিত হইলে ঢাকা এক রূপ শত্রুর আগমন হইতে নিরাপদ হইত। এই দুর্গ ইছামতী নদীর দক্ষিণপারে স্থাপিত হইয়াছিল। নদীর DDLBDB DDtBDSDD0 S0YBK KY Dtg0Y SDS e GDKDDS DBDBD0 DKEEBE KKt BBDBBD KSE S SSSDD DJDD gg BDDBDESSDEHS আসামী, ফিরিঙ্গি ও আগর প্রভৃতি শক্রগণের আক্রমণের প্রতিরোধ করিত । ঢাকা নগরী সংরক্ষিত করা ব্য৩া ৩। এই দুর্গ স্থাপনের অন্য এক মহত্ত্বর উদ্দেশু ছিল । একদিকে পূৰ্ব্ববঙ্গবাসী যেমন আসামী ও আফগানের আক্রমণে বিপৰ্য্যস্ত, অন্যদিকে তেমনি পর্তুগীজ ও অন্য জলদসু্যর অত্যাচারে উৎপীড়িত হইয়াছিল । নদীবহুল পুর্ববঙ্গলায় এই ফিরিঙ্গি ও মাগের প্রকোপ এত বাড়িয়া উঠে যে, টঙ্গ দিগকে দমন কবিবার নিমিত্ত নানারূপ উপায় উদ্ভাবন করতে হইয়াছিল । ইদ্রাকপুর ও হাজিগঞ্জে দুৰ্গস্থাপন ইহার অন্যতম উপায় । পুর্ববঙ্গবাসী দিগকে মগ ও BBKDS K DLD DBBeD DDB BD BBD KD TYY DDBS ঐতিহাসিকগণও-রিয়াজউস সালাতিন রচয়িতা গোলাম হোসেন, আলমগীরনামা রচয়িতা সিরাজমহম্মদ কাজেম প্ৰভৃতি-লক্ষ্যা ও ইছামতীর