পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হকী কত রায় । । NOY) কাজীদিগের উপদেশ মত, হাকিমের নিকট পুনরায় বিচার প্রার্থনা কৱিল । আমীরবেগ স্বভাবতঃ ন্যায়বান ও দয়ালু হইলেও, শাসনকৰ্ত্তার অনুরূপ মানসিক তেজঃ তাহাতে আদেী দৃষ্ট হইত না। তিনি সকলকেই সন্তুষ্ট রাখিতে সর্বদা যত্নপার হইতেন । এজন্য অনেক সময়ে তাহাকে অনিচ্ছা সত্বেও বহু অন্যায় কাৰ্য্যের সমর্থনা করিতে হইত। তঁহার হকীকত রায় সম্বন্ধীয় বিচারে মুসলমান অধিবাসিৰ্ববৃন্দ অসন্তুষ্ট হইয়া পুনবিচারের প্রার্থনা করিলে, তিনি একটু ব্যতিব্যস্ত হইয়া উঠিলেন। উভয় পক্ষকে তুষ্ট রাখিবার জন্ত তিনি হকাকতকে স্বীয় সমীপে আনয়ন পূৰ্ব্বক ইসলামধৰ্ম্ম গ্ৰহণ করিবার জন্য বহুবিধ উপদেশ দিতে লাগিলেন । কিন্তু কৰ্ত্তব্যপরায়ণ ও গঠিত চরিত্র সপ্তদশবর্ষীয় বালক হকীকত কোন ক্রমেই তাহার মতে মত দিলেন না । তাহার চিত্তপটে বহুতর আত্মত্যাগী মহাত্মার চিত্র অঙ্কিত ছিল ; তিনি তঁহাদের ন্যায় হইবার জন্য সর্বদাই সোৎসুক ছিলেন । এরূপ অবস্থায় তাহাকে ধৰ্ম্মান্তর গ্ৰহণ করান কোন মতেই সহজ। সাধ্য নহে । আমীরবেগ হকী কতের দৃঢ়তায় বিচলিত হইয়া কহিলেন, “ইহার বিচার এখানে সম্পন্ন হওয়া দুরূহ। এজন্ত ইহাকে লাহোরে প্রেরণ করাই উচিত মনে করিতেছি ।” তঁহার এইরূপ আচরণে মুসলমানকুল সাদরে সম্মতি প্ৰদান করিলে, তিনি আর কালবিলম্ব না করিয়া অভিযুক্ত বালককে লাহোরে প্রেরণ করিলেন। লাহোরপতি স্বয়ং এই বিচারের ভার না লইয়া কাজীদিগের উপর ন্তস্ত করিলেন। তাহার বিচারাস্তে স্যালকোটের কাজীদিগের 'ফৈসলা’ ( রায় ) সমর্থন করিলেন, তখন হকীক তকে মুসলমান ধৰ্ম্মে দীক্ষিত করি।-- বার জন্য রাজপক্ষ হইতে রীতিমত প্ৰয়াস চলিল, যত্নরূপ প্ৰলোভন ছিল, সমস্তই প্ৰদৰ্শন করা হইল। কিন্তু বালক স্থির কণ্ঠে উত্তর করিলেন -‘মেরে কো অপনা ধৰ্ম্ম ছোড়কর দুনিয়াকে কি সী পদার্থকী ইচ্ছা नरी