পাতা:কথামালা - ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর.pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩১
কথামালা

লিতেও সেইরূপ ভদ্রতা করিতে, তাহা হইলে, আমিও, তােমার নিকট বিদায় না লইয়া, কাদাচ, কুটীর হইতে চলিয়া যাইতাম না।

 এক কথায় যত মন্দ হয়, এক ইঙ্গিতেও তত মন্দ হইতে পারে

 

কাক ও জলের কলসী

এক তৃষ্ণার্ত কাক, দুর হইতে, জলের কলসী দেখিতে পাইয়া, আহলাদিত হইয়া, ঐ কলসীর নিকটে উপস্থিত হইল, এবং, জলপান করিবার নিমিত্ত, নিতান্ত ব্যগ্র হইয়া, কলসীর ভিতর ঠোঁট প্রবেশ করাইয়া দিল; কিন্তু, কলসীতে জল অনেক নীচে ছিল, এজন্য, কোনও মতে, পান করিতে পারিল না। তখন সে, প্রথমে, কলসী ভাঙ্গিয়া ফেলিবার চেষ্টা পাইল; পরে কলসী উলটাইয়া দিয়া, জলপান করিবার চেষ্টা করিল; কিন্তু, বলের অল্পতা প্রযুক্ত, তাহার কোনও চেষ্টাই সফল হইল না। অবশেষে কতকগুলি লুড়ি সেই খানে পড়িয়া আছে দেখিয়া, এক একটি করিয়া, সমুদয় লুড়ি গুলি কলসীর