পাতা:কবিকঙ্কণ-চণ্ডী (প্রথম ভাগ) - চারুচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গণেশের দেবত্বের ক্রমবিকাশের ইতিহাস ও মহাশক্তির মহিমায় প্রতিষ্ঠিত হইতেছিলেন, তখন গণেশও উচ্চ স্তরে স্বীকৃত হুইবার জন্য ব্যস্ত হইয়া পড়িয়াছিলেন। এই অনুমানের সমর্থক প্রমাণ গণেশের বহুবিধা জন্মবিবরণ ও উপাখ্যান হইতে পাওয়া যায়। স্কন্দপুরাণের মহেশ্বর-খণ্ডের অন্তর্গত কেদার খণ্ডে এই উপাখ্যানটি আছেKLKK SDS BDBDBS BDB D D DBDB KKKLLS DBDD D BDBB BS কাজেই “গণেশ্বর দহুকাল অজ্ঞান বশে প্ৰাকৃতজনবৎ শিববিরোধী ছিলেন।” তার BDBD SDi SDi gBLY SguDDBD Bu g K KEEBB BDDSBDD DS DDSDD iD KLKSKY মুণ্ড ছেদন করেন। তখন শিবশক্তি পাৰ্ব্বতী আসিয়া কঁদিয়া পড়িলেন, শিবকে গণেশের প্ৰকৃত পরিচয় জানাইয়া পুত্ৰেৰ প্ৰাণ ভিক্ষা চাহিলেন। তখন শিবশক্তির অনুরোধে শিব শক্তিপুত্রের কবন্ধ দেহে গজমুণ্ড যোজনা করিয়া তাকে পুনরুজজীবিত কবি সৃষ্ট দেন । Dt DD DBD BD 0 KL0L DBSDDS EED KEEGSDBBBDB GLDD LDD BB BBD করিলেন যে “এই চরাচর সমস্ত লোক শিব ও শিবশক্তি যোগেই সংশ্রিত।” সেই হইতে গণেশকে সম্মানিত ও গণেশজননীকে প্ৰীত করিবার জন্য শিব সৰ্ব্বকৰ্ম্মারম্ভে গণেশের অর্চনা নির্দেশ করিয়া দিলেন । এই উপাখ্যানটির একটু রূপান্তর দেখা যায় শিবপুরাণে। শিব তার গণ লইয়া নানাস্থানে বিচরণ করিতেন, পাৰ্ব্বতী একাকী অরক্ষিত গৃহে থাকিতেন । নিজেব পাহারার জন্য পাৰ্ব্বতী এক তাল কাদা দিয়া একটি পুতুল গড়িয়া তাতে প্ৰাণসঞ্চাব করিলেন ও তাকে দ্বাররক্ষায় নিযুক্ত করিলেন । পুতুলের উপর হুকুম হইল কাহাকেও পাৰ্ব্বতীর গৃহে প্ৰবেশ করিতে দিবে না। শিব গণ লইয়া ফিরিয়া আসিলে সেই প্ৰাণবান। পুতুল তঁকেও বাধা দিল। কাজে-কাজেই শিবের সঙ্গে পুতুলের যুদ্ধ। ফল-শিব কর্তৃক পুতুলের মুণ্ডচ্ছেদ। পাৰ্ব্বতী খবর পাইয়া ক্রুদ্ধ হইয়া সৃষ্টি ধ্বংস করিতে উদ্যত । ভবানী-ভ্ৰকুটভঙ্গে ভীত ভবেশ নদীকে তাড়াতাড়ি পাঠাইলেন—যার হয় একটা মুণ্ড আনিয়া জোগাঁও, সেইটা জুড়িয়া পুতুলটাকে বাঁচাই, নহিলে আর রক্ষা নাই। নদীটাি ভূত, বানরমুখ, মোটা-বুদ্ধি; সামনে পাইল একটা ঘুমন্ত হাতী, তারই মাথাটা কাটিয়া আনিল ; আর ভূতনাথও কালবিলম্ব না করিয়া হাতীর মাথাটাই জুড়িয়া পুতুলকে জীবন্ত করিয়া দিলেন, তাতে যে পাৰ্ব্বতীপুত্রের শ্ৰী কেমন হইল সেদিকে লক্ষ্যও করিলেন। না। কিন্তু সেই অদ্ভুতমুক্তি পুতুলকে দেখিয়া পাৰ্ব্বতীর হর্ষ-বিষাদ হইল, কোপ শান্ত হইল না। তখন তাকে গণদিগের অধিপতি করিয়া ও সকল দেবতার পুজার আগে পূজা নির্দেশ করিয়া মহাদেব গৃহিণীর ক্ৰোধ হইতে কোনো রকমে নিষ্কৃতি পাইয়া বঁচিলেন। এই দুই আখ্যায়িকা হইতে এই বুঝিতে পারা যায় শিব ও গণেশ অপরিচিত দুই সমাজের দেবতা ছিলেন এবং একের দেবতাকে অপরের দ্বারা স্বীকার করাইতে 臀