পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১০৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఫిషెbr কলিকাতা সেকালের ও একালের । সহিত এগুলিও লুঠ হয়। অতঃপর বোলাকিদাস, নন্দকুমারকে সেই দ্রব্যগুলির মূল্যবাবৎ ৪৮,০২১ টাকা দিতে স্বীকার করিয়া একখানি অঙ্গীকারপত্র লিথিয় দেন এবং শতকরা চারি অানা সুদ দিতেও স্বীকার করেন । এই দলিলে মাতাব রার ( মহাতাপ রায় ), মহম্মদ কমল ও বোলাকির উকীল সিলাবৎ সাক্ষ্মী হইয়া সহি করেন । তৎপরে বোলাকি, নিজের সহি ও মোহয় করিয়া দিয়া, উহা নন্দকুমারকে প্রদান করেন। কোম্পানীর নিকট বোলাকির দুই লক্ষ টাকা পাওনা ছিল। বোলাকির মৃত্যুর পর এই টাকা আদার হইলে, তাহার তত্ত্বাবধায়ক পদ্মমোহন দাস নন্দকুমারের পাওনা টাকা পরিশোধ করেন। অতঃপর পদ্মমোহনের মৃত্যুর পর, বোলাকির এক আত্মীয় গঙ্গাবিষ্ণু এই টাকার হিসাব লইয়। নন্দকুমারের বিরুদ্ধে এক দেওয়ানী মোকদম উপস্থিত করেন। কিন্তু নন্দকুমার পূৰ্ব্বোক্ত অঙ্গীকার-পত্রের বলে, এই মোকদ্দমায় জয়ী হন। এক্ষণে হেষ্টিংসের মনে সেই মোকদ্দমার কথা উদয় হইবামাত্র, তিনি বোলাকির আমমোক্তার মোহনপ্রসাদকে দিয়া, নন্দকুমারের বিরুদ্ধে বোলাকির উক্ত অঙ্গীকার-পত্র জাল করার দাবীতে, এক অভিযোগ উপস্থিত করা হলেন (ష్రి খুইব্দের ৬ই মে ) । অভিযোগের সঙ্গে সঙ্গেই গুঞ্জম কোর্টের জজের তৎকালীন সেরিফ মিঃ ম্যাক্রেবাকে আদেশ দিয়া, নন্দকুমারকে কারারুদ্ধ করাইলেন । নন্দকুমারের মত গণ্যমান্ত সমাজনেতা পদস্থ ব্যক্তিকে সাধারণ কারাগারেই থাকিতে হইয়াছিল। সাধারণ্যে বিশেষ আন্দোলন সত্ত্বেও এ সম্বন্ধে কোন বিশেষ বন্দোবস্ত করা জজগণ সঙ্গত মনে করেন নাই। কারাগারে নন্দকুমার উপযুপিরি তিন দিন জলগ্রহণও এ কবীর, অবশেষে কারাগারের উঠানে একটা তাবু খাটাইয়া, সেই খানেই গুহকে স্নান পূজার ও আহারের অধিকার দেওয়া হয়। * ৮ই জুন জাল মোকদম। আরম্ভ হইল । ৯ই জুন প্রধান বিচারপতি নর ইলাইজ ইম্পে, অন্ত তিন জন বিচারপতি এবং ১২ জুন জুরী বিচার আরজ করিলেন। কয়েকদিন ব্যাপী মোকদমার পর অবশেষে ১৫ই জুন অধিক রাত্রি পর্য্যন্ত বিচার হইয়া তৎপরদিন মহারাজের প্রাণদণ্ডের আদেশ झहेछ । e * * নন্দকুমার দণ্ডাদেশের পর ২২ দিন যাবৎ কারাগারের একটা দ্বিতল গৃহে আবদ্ধ ছিলেন। নবাব মবারকউদ্দৌলা কাউন্সিলে এই মর্শ্বে একটা পত্র প্রেরণ করেন যে, ইংলণ্ডাধিপতির নিকট এই ব্যাপার লিথিয়া পাঠান