পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১০৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চবিংশ অধ্যায় । ، هدxملا বলিতে গেলে, একখানি স্বতন্ত্র পুস্তক, হইয় পড়ে। এই জন্য আমর। পুরাকালে যাহার। স্বনাম-ধন্ত ও প্রথিত-যশ হইয়াছিলেন, তাহামের কথাই বলিব। কেননা আমাদের স্থান অতি সংক্ষেপ। 3. কান্তকুজীগত পঞ্চব্রাহ্মণের মধ্যে, ভট্টনারায়ণ এই গোষ্ঠীর জাদি । পুরুষ । ভট্টনারায়ণের পুত্র নাঙ্ক বা নৃসিংহ কুশারীর বংশে, ইহঁাদের । উদ্ভব। ইহার রাঢ়শ্রেণী ভূক্ত এবং পিরালী-দোষযুক্ত।" কিন্তু, তাছা হইলেও, ধনে মানে ও ঐশ্বৰ্য্যে ইহঁৱা সৰ্ব্বজনবিদিত । 爱 এই বংশের আদিনিবাস, যশোহরের অন্তর্গত চেঙ্গটির পরগণায় । ছিল । এতদ্বংশীয় পঞ্চানন ঠাকুর, সৰ্ব্ব প্রথমে কলিকাতায় আগমন করেন । তখন কলিকাতা বনজঙ্গলে সমাচ্ছন্ন। মুতালুট, কলিঙ্কাত ও. গোবিন্দপুর এই তিনখানি গওগ্রাম, তখন ধীরে ধীরে জনপূর্ণ হইতেছিল। পঞ্চানন ঠাকুর মহাশয়, কলিকাতায় গোবিন্দপুরে জাসিয় বসবাস করেন। পুরাকালের এই গোবিন্দপুরের স্থানাধিকার, করিয়া বর্তমান ফোর্টউইলিয়ম দুর্গ নিৰ্ম্মিত হইয়াছে। পঞ্চাননের পুত্র , জয়রাম, ইঃইণ্ডিয়া-কোম্পানীর অধীনে, আমিনের কার্য্য করিতেন। পলাশী-যুদ্ধের । পর, যে সময়ে গড়ের মাঠের বর্তমান কেল্লা নিৰ্ম্মিত হইবার বন্দোবস্ত ঠিক - হইয়া যায়, সেই সময়ে গোবিন্দপুরের অনেকের বাড়ীখন্ম সেই স্থানে ভাল ; পড়ে। ইহঁাদের অনেকে গোবিন্দপুর ত্যাগ করির ক্ষতালুট অঞ্চলে চলিয়া যান। জয়রামও এই ঘটনায় বাসচু্যত হইয়া, পাথুরিয়াঘাটায় । আসিয়া বসবাস করেন । কোম্পানী সে সময়ে ২৪ পরগণার জমীদারী প্রাপ্ত হন, কৰ্ম্মকুশল জয়রাম, সেই সময়ে এই মুহূহৎ জেলার ৰিলি-বন্দোবস্ত . কার্য্যে, কোম্পানীকে যথেষ্ট সাহায্য করেন। • ১৭৬২ খ্ৰীঃ আন্ধে জয়ब्राप्धब्र शृङ्क इत्व । জয়রামের চারি পুত্র । জানন্দীরাম, দর্পনারায়ণ, নীলমণি . ও গোবিন্দরাম। প্রথম ও চতুর্থের বংশ নাই। দ্বিতীয় দর্পনারায়ণ ও নীলমণির বংশধরেরাই এখন কলিকাতা সমাজ অলঙ্কত করিয়া আছেন । দর্পনারায়ণের বংশধরেরা সিনিয়ার-ব্রাঞ্চ ও নীলমণির বংশধরের ঠাকুর গোষ্ঠীর জুনিয়ার-ব্রাঞ্চ বলিয়া সাধারণে পরিচিত। 會 পঞ্চানন ও তৎপুত্র যে সময়ে গোবিন্দপুরে বসবাস করিতেন, সেই जभत्त्व ८श्रोबिन्लक्ष्ब्र बाक्रम जत्था बन्नु रूभ श्णि ! अिहे छक्क चना छोडौत्र अधिषांनौद्रा, ॐांशंटक्ट्स **ांबूद्र", कलिङ्गः नष्कांशन कब्रिाउन । *:भएग्न, रेशीं,