পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায় । Xe X গিয়াছেন। কেদাররায়ের প্রতিষ্ঠিত ভুবনেশ্বরী মূৰ্ত্তি, নদীয়া জেলার কালীগঞ্জ থানার, লাখুরিয়া গ্রামের চৌধুরী মহাশয়দের বাটাতে অদ্যাপি বিরাজিত। দেবীর পদোপরি—কেদাররায়ের নাম খোদিত। কেদারবাটী নামক স্থানে কেদাররায়ের খনিত দুইটী বৃহৎ পুষ্করিণী, আজও তাহার কীৰ্ত্তিঘোযণা করিতেছে । সৰ্ব্বাপেক্ষ “রাজাবাড়ী মঠ” র্তাহীদের বিরাট কীৰ্ত্তির পরিচায়ক । * কেদাররায়ের পতনে, বিক্রমপুর রাজ্যের মুকুটমণি খসিয়া পড়িল । মহারাজ মানসিংহ, প্রতাপাদিত্য ও কেদাররায়ের মত, দুইজন পরাক্রান্ত ভৌমিককে পরাজিত করিয়া, বঙ্গদেশে—“ভু ইয়া-বিদ্রোহের” যবনিক পতন করেন । - রাজা কেদাররায়ের এই আকস্মিক মৃত্যুতে, তাহার অধীনস্থ সেনা ও সেনাপতিগণ বড়ষ্ট ভীত হইয়া পড়েন। যুদ্ধ স্থগিত রাখাই, সকলের মত ইষ্টল। কিন্তু মন্ত্রী রঘুনন্দন চৌধুরী ও সেনাপতি কমলশরণ রায়, কোনমত্তে ঐত না হইয়। দ্বিগুণ উৎসাহের সহিত যুদ্ধ করিতে লাগিলেন। অন্তান্ত সেনা-নায়কগণের মধ্যে, কালিদাস ঢালি, রাজাসরদার, পটুগীজ ফ্রান্সিস ও সেথ কালু, তাহদের সহায়তা করিতে লাগিল। কিন্তু পরিণামে সেখ কালু ও ফ্রান্সিস, বিপক্ষ পক্ষের সহিত যোগদান করে। মহারাজ মানসিংহ রাজমন্ত্রী রঘুনন্দনকে বলিয়া পঠাইলেন--”যদি আপনার যুদ্ধে ক্ষান্ত হন, তাহা হইলে আমি বিক্রমপুরের উপর কোন অত্যাচারই করিব না। বরঞ্চ রাণীকে রাজ্য ভার দিয়া বাঙ্গল হইতে চলিয়া যাইতে পারি।” রঘুনন্দন যখন দেখিলেন, তাহদের দল হইতে বিশ্বাস-ঘাতকগণ মোগল পক্ষে যোগদান করিতেছে, সেনাগণও রাজা বিহনে নিরুৎসাহ হইয়াছে এবং : রাণীও আর অনর্থক লোকুক্ষয়ে ইচ্ছক নহেন—তখন তিনি, কমলশরণ প্রভৃতি সেনা-নায়কগণকে সঙ্গে লইয়া, মানসিংহের শিবিরে উপস্থিত হইয়া আত্মসমর্পণ করেন। মহারাজা মানসিংহও, রাজা কেদাররায়ের পত্নীর হস্তে

  • জয়পুরের চারণ-কবিদের কবিতায়, কেদাররায়ের কথা উল্লেখ আছে। অবস্থা দেখিয়। বোধ হয়, মানসিংহের বঙ্গবিজয় কীৰ্ত্তিকাহিনী, রাজপুতানায় বিঘোষিত করিবার জলা, চারণগণ র্তাহীর গুণুগরিম। প্রকাশক—এই সমস্ত কবিতা রচনা করিয়াছিলেন । আমরা তাহ। হইতে নিম্নলিখিত অংশটুকু উদ্ধত করিতেছি।

“তথতপর বৈঠকর, সেলিমনে আপনা নাম জাহাগীর রখথ । উস মে মানসিংঞ্জীকো BBBBB BBBB BS BBBBB BBB BBBB BBBS DDB BB BB BBS S মানসিংঞ্জী পরতাপস্তাদিতা কে জীত কর, রাজ কেদার কে রাজপর চড়াই কৈ। বহু BBB BBDg S gB BBBB BD DBB BBB BBS BBBBB BBB BBBS কেদাররায়ের বীরত্ব সম্বন্ধে কোন কথা লিপিবদ্ধ ন হইলেও, সুদূর রাজপুতনার চারণগণের কবিতার মধ্যে, ঠাখার কীৰ্ত্তি কাহিনী সুরক্ষিত হইয়াছে—ইহাই বঙ্গবাসীর গৌরবের কথা।