পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>)● কলিকাতা সেকালের ও একালের । এবং প্রস্তরের মত একটা পদাঙ্গুলি দেখিতে পান। তাহার পরই, তিনি দেবীর প্রত্যাদেশ পাইলেন,—“যে অস্থলী তুমি এই কুণ্ডতীরে পাইয়াছ, তার বিষ্ণু কত্ত্বক সুদৰ্শন-ছেদিত সতী-অঙ্গ । আর ঐ যে কৃষ্ণবর্ণ প্রস্তর-ফলক দেখিতে পাইতেছ, তাহ ব্ৰহ্মার নিৰ্ম্মিত কালী-মূৰ্ত্তি।" ব্রাহ্মণ-দেবীর এই প্রতাদেশ পাইয়া, যত্ন করিয়া ঐ উভয় খণ্ডই একত্রিত করিলেন এবং তাহার নিত্য পূজা করিতে লাগিলেন। ইহার পর গভীর জঙ্গল-মধ্যে অনুসন্ধান করিয়া, তিনি নকুলেশ্বর শিবলিঙ্গও প্রাপ্ত হন। কলীমূর্টির আবিষ্কার সম্বন্ধে—আমরা আরও দুই একটা কিম্বদন্তী এস্থানে উল্লেখ করিব। এগুলিও পাঠকের শুনিয়া রাখা উচিত। নবদ্বীপাধিপতি স্বনাম ধন্স, বাজপেয়ী মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্র রায়,এক সময়ে নবাব-সরকারে বারলক্ষ টাকা খাজনার দায়ে ঋণী হওয়ায় --মুর্শিদাবাদের নবাব কর্তৃক কারারুদ্ধ হন।* নবাব আলিবর্দী ধর্ণ, কৃষ্ণচন্দ্রের গুণগরিমার কথা বিশেষরূপে অবগত ছিলেন । তিনি তাহাকে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করিতেন। অবকাশ সময়ে, তাহার নিকট হিন্দুধৰ্ম্মের আচার-ব্যবহার ও মহাভারতাদির উপাখ্যান কথা শ্রবণ করিতেন । একদিন নবাব আলিবর্দী থ’, মহারাজা কৃষ্ণচন্দ্রকে সঙ্গে লইয়া নৌকাৰিহারে যাত্রা করেন । মহারাজা কৃষ্ণচন্দ্র, নবাবকে নিজের জমীদারীর অবস্থা দেখাইবার জন্স, কৌশলে কলিকাতা পর্য্যস্ত লইয়া আসেন । নৌকা হইতে নামাইয়া, জঙ্গলমধ্যবৰ্ত্তী ভূভাগ-সমুহ, নবাবকে দেখাইয়া দিয়া, কৃষ্ণচন্দ্র বলেন --জাহাপনা ! ঐ শুমুন-ব্যাঘ্র-ভল্লুকাদির ভীষণ গর্জন ! আমার এই জঙ্গলময় জমীদারী, হস্তী-ব্যাঘ্র বরাহাদি প্রজাপূর্ণ। ইহাতে মামুষের বসবাস নাই—কেবল বন্য-শ্বাপদগণ বাস করে । এ জমীদারীর খাজনা আমি কাহার নিকট হইতে আদায় করিব ? এই জন্যই নবাব সরকারে আমার রাজস্ব এত বাকী পড়িয়াছে।” বলা বাহুল্য—নবাব,স্বচক্ষে মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্রের জমীদারীর অবস্থা লক্ষ্য করিয়া, সরকারের প্রাপা-খাজনা মহকুব করিয়া দেন। }

  • কলিকাতা রিভিউ এর লেখক,গেীরদাসবাবু বলেন—এই বাকীগ্নজনার পরিমাণ ৫২লক্ষ। কালীময় ঘটক মহাশয়ের মতে, রাজার পিতার আমলের দশলক্ষ, ও তাহার নিকট হইতে দশলক্ষ, এই কুড়িলক্ষ টাকার দায়ে মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্র কারারুদ্ধ হন।

t Maharaja Krishna Chunder, was the constant companion of Alivardi Khan (Mahabat Jung) and that during his trips on the river, he used to read and explain the Mahabharata to him. It is also said, that he succeeded in obtaining from the Naw ab, a remission of arrears of revenue due from hiřn to the amount of fifty two lakhs or so, by cleverly taking