পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఫ్చిది কলিকাতা সেকালের ও একালের । হয়েন। যথাস্থানে আমরা ভুবনেশ্বরের ও ভবানীদাসের বংশবৃক্ষ প্রদান করিলাম ।* 齡 সাবর্ণ-বংশীয় কামদেব ব্রহ্মচারী হইতেই—কালীমূৰ্ত্তির সহিত, সাবধ বংশের প্রথম সম্বন্ধ। কামদেবের একমাত্র নিরদিষ্ট পুত্র-লক্ষীকান্ত মজুমদার, এই সাবর্ণ-পরিবারের আদি পুরুষ। লক্ষ্মীকান্ত, মানসিংহের নিকট জমীদারী প্রাপ্তির পরও, কালীর সেবার জন্য—কোন সম্পত্তি স্থায়ীভাবে দান করিতে পারেন নাই। তাহার কারণ আর কিছুই নহে—সেই সময় বঙ্গদেশের চারিদিকেই রাষ্ট্র-বিপ্লব । বাদসহ-প্রদত্ত, জমিদারীর শাসন-শৃঙ্খলা সাধন করিতে, প্রায় দুই পুরুষ সময় লাগিয়াছিল। এই জমিদারীর শৃঙ্খলা সাধনের জন্তই, নবাব মুরশীদকুলীখণর আমলে, লক্ষ্মীকাস্তের বংশধরগণ নিমতায় আগমন করেন—তৎপরে তাহদের বড়িশায় বাস হয়। এই জন্যই, আমরা তাহার বংশধর কেশবরীয় ও সন্তোষরায়ের ( শিবদেব ) আমলে, কালীঘাটের সহিত র্তাহীদের বিশেষ সম্বন্ধ দেখিতে পাই । সন্তোষরায়-নবাব আলিবর্দী খণর আমলের লোক। পরে ইহার বিষয় বিশদ রূপে বিবৃত হইবে । কালীঘাটের উন্নতি সম্বন্ধে, প্রধান উপলক্ষ্য এই সাবর্ণ-জমিদার। ইহাদের সহায়তা না থাকিলে, কালীঘাটের বর্তমান উন্নতি অসম্ভব হইয়া দাড়াইত। বর্তমান কালের—এ সুবৃহৎ মন্দিরও নিৰ্ম্মাণ হইত না । সাবর্ণজমিদারগণ—কলিকাতার দক্ষিণ-অঞ্চলের সমাজপতি ছিলেন । তাহারা কৌলীন্ত-মৰ্য্যাদা না পাওয়াতেও, পরিণামে—চারি-মেলের কুলীন-সন্তান গণের সহিত, কন্সার বিবাহ দিয়া, সামাজিক প্রাধান্স লাভ করেন – কেবল কলিকাতার দক্ষিণ-অঞ্চলে নহে—তৎকালীন কলিকাতা সমাজেও, ইছাদের যথেষ্ট আধিপত্য ছিল । সন্তোষরায় প্রসঙ্গে, পাঠক পরে সে সব ঘটনা জানিতে পরিবেন। নিম্নে আমরা একটা তালিকা প্রদান করিতেছি । ইহা হইতে পাঠক ষোড়শ শতাব্দীতে, কামদেব ব্রহ্মচারীর সময় হইতে, উনবিংশ শতাব্দীর ১৮০৯ খঃ অদ পর্য্যস্ত—বড়িশার সাবণী-জমিদার ও কালীর সেবায়েত হালদার বংশের ও র্তাহীদের সমকালীন ব্যক্তিগণের প্রাদুর্ভাব, তুলনায় সমালোচন

  • অনেকে অনুমান করেন, ভবানীদাসের বংশধরগণ, বংশবিস্তারের সহিত, কালীঘাট,

ভবানীপুর, চড়কডাঙ্গ। গোবিন্দপুর, প্রকৃতি স্থানে ছড়াইয় পড়েন। ধরিতে গেলে, ভবানীরা ও উহার বংশধরেরা, কালীঘাটের ও ভবানীপুরের জঙ্গল-কাটানে, অধিবাসী । অনেকে জম্বুমাল এই, ভবাণীদাস স্কষ্টঙ্কে ভবানীপুর নামকরণ হইয়াছে। -